• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯, ১২:৫৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯, ১২:৫৪ পিএম

তেজগাঁওয়ে ছাঁটাই-নির্যাতনের প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলন

হালিম মোহাম্মদ
তেজগাঁওয়ে ছাঁটাই-নির্যাতনের প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলন

তেজগাঁও শিল্প এলাকার নাসা গার্মেন্টস এর পোশাক শ্রমিক ছাঁটাইকে ঘিরে বিদ্যমান শ্রমিক আন্দোলন আর জোরদারের আশঙ্কা করছে গোয়েন্দারা। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে তেজগাঁও শিল্প এলাকায় গার্মেন্টস শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ হয়। রাতের সাতরাস্তার মোড় থেকে নাবিস্কো পর্যন্ত শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করেছে। এসময় পুলিশ অবরোধ সরিয়ে দিতে গেলেই পুলিশের সঙ্গে পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ বাধে। এসময় পুলিশ ও পোশাক শ্রমিক ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এরপরই রাত বেশি হয়ে যাওয়ায় আন্দোলনের ক্ষিপ্রতা কমে
আসে। পাশাপাশি স্থানীয় পোশাক শ্রমিক ছাড়াও রাজধানী ও তার আশপাশের পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলনে যোগ দিতে আহ্বান করে আন্দোলনরত শ্রমিক নেতা ও নেত্রীরা।

এসব মিলিয়ে আজ বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে শ্রমিকরা রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকার নাসা গার্মেন্টসের সামনে অবস্থান করে। এ খবর পেয়ে তেজগাঁও থানা ওসি শামীম ও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি আলী হোসেন যৌথ ভাবে এ আন্দোলনে যাতে কোন ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা না ঘটে সে বিষয়ে সমন্বয় করে অতিরিক্ত পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব এবং গোয়েন্দা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ভোর রাতেই সংশ্লিষ্ট এলাকারসাত রাস্তার মোড়, তিব্বত, নাবিস্কো, সনি র‌্যাংগস ফ্লাইওভার ক্রসিং এলাকায় রায়ট কার, এপিসি, জলকামানের মতো সরঞ্জাম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। 

এদিকে স্থানীয় সূত্র বলেছে, রাজধানীর তেজগাঁয়ে গার্মেন্টস শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাতের গভীর পর্যন্ত ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

তেজগাঁয় শিল্পাঞ্চল থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আলি হোসেন জানান, গত দুদিন ধরে নাসা গার্মেন্টসের শ্রমিক ছাটাই নিয়ে অসন্তোষ বিরাজ করছিল। বুধবার রাত এগারোটার পর শ্রমিকরা গার্মেন্টসের আসে পাশে এসে অবস্থান নেয়। উত্তেজিত শ্রমিকরা গার্মেন্টসে ভাঙচুর করতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা পুলিশের উপর হামলা করে। আর তখনই সংঘর্ষ বেঁধে যায়। রাত সোয়া তিনটায় এ রির্পোট লেখার সময় পুলিশ সতর্ক থাকলেও শ্রমিকরা রাস্তা ছেড়ে দেয় বলে পুলিশ জানায়। 

এইচ এম/টিএফ

আরও পড়ুন

Islami Bank