• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৫, ২০১৯, ০৫:২৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৫, ২০১৯, ০৫:২৭ পিএম

বৈষম্য বিলোপ আইন পাসের দাবিতে মানববন্ধন

জাগরণ প্রতিবেদক
বৈষম্য বিলোপ আইন পাসের দাবিতে মানববন্ধন
বক্তব্য রাখেন সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স-ছবি : জাগরণ

স্বাধীন দেশের নাগরিক হওয়া সত্বেও দেশের ৬৫ লাখ দলিত জনগোষ্ঠী মর্যাদাপূর্ণ জীবন-যাপন করতে পারছে না বলে মন্তব্য করেছেন সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স।

সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, অনতিবিলম্বে বৈষম্য বিলোপ আইন পাস করা হোক। 

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) বিশ্ব মানবিক মর্যাদা দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলনের (বিডিইআরএম) উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

অবিলম্বে বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়নের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বিডিইআরএ’র সভাপতি মনি রানী দাস। বক্তব্য রাখেন নাগরিক সংহতির সাধারণ সম্পাদক শরীফুজ্জামান শরীফ, বিডিইআরএমর সাংগঠনিক সম্পাদক ভীম্পাল্লী ডেভিড রাজু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কৈলাশ রবিদাস, বিডিইআরএম নীলফামারী জেলার সভাপতি শাওন ভূঁইমালী, ঢাকা জেলা সভাপতি গগন লাল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ইউ কে নন্দন জয়।

সঞ্চলনা করেন বিডিইআরএমর ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক শিপন কুমার রবিদাস।

রহিন হোসেন বলেন, অত্যন্ত উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি দেশের বিভিন্ন স্থানে দলিতদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে এবং কোথাও কোথাও উচ্ছেদের প্রক্রিয়া চলছে। পুর্নবাসন ছাড়া কোনও দলিত কলোনী উচ্ছেদ না করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

শরীফুজ্জামান শরীফ বলেন, ২০১৪ সাল থেকে বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়নের দাবিতে আমরা আন্দোলন করে যাচ্ছি কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় আজ অবধি এই আইনটি পাস হয় নাই। তিনি আইনমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, দলিত জনগোষ্ঠীর মানবিক মর্যাদা ও তাদের অধিকার সুরক্ষার জন্য অনতিবিলম্বে এই আইনটি পাস করতে হবে।

বিডিইআএর এর সভাপতি মনি রানী দাস বলেন, বাংলাদেশের প্রায় ৬৫ লাখ দলিত জনগোষ্ঠী নানাবিধ বৈষম্যের শিকার। বাংলাদেশের নাগরিক হয়েও মর্যাদা ও অধিকার থেকে প্রতিনিয়ত বঞ্চিত হচ্ছি, এ অবস্থা চলতে দেয়া যায় না।

টিএস/এসএমএম