• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯, ০৬:১৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯, ০৬:১৯ পিএম

বিমানের ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

জাগরণ প্রতিবেদক
বিমানের ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশ বিমানের বহরে যুক্ত হলো চতুর্থ বোয়িং ৭৮৭-৮ -ছবি : সংগৃহীত

রা জ হং স

● ২০ শতাংশ জ্বালানি সাশ্রয়ী বিমানটির আসন সংখ্যা ২৭১ 

● ঘণ্টায় ৬৫০ মাইল বেগে একটানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে সক্ষম

● থাকছে ইন্টারনেট পরিষেবার সুযোগ-সুবিধা

..............................................

বিমানের নতুন পালক ‘রাজহংস’-এর উদ্বোধন আরও দুইটি বোয়িং ক্রয়ের তথ্য জানালেন প্রধানমন্ত্রী জাগরণ প্রতিবেদক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আরও দুইটি বোয়িং বিমান ক্রয় করার পরিকল্পনা রয়েছে তার সরকারের। তিনি বলেছেন, ‘আমি শুনলাম, বোয়িংয়ে নাকি দু’খানা বিমান খুব শিগগিরই বিক্রি করতে চাচ্ছে। এখনও কেউ অর্ডার দিয়ে নেয় নি, সুযোগটা আমরা নেবো। কারণ আমাদের রিজার্ভ মানি কিন্তু এখন যথেষ্ট ভাল অবস্থায় আছে। আমাদের যে রিজার্ভ মানি আছে, তাতে আমরা এটা নিজেদের পয়সায় কিনতে পারবো, খুব একটা অসুবিধা হবে না।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নতুন ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’-এর উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্ব) বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই চতুর্থ বোয়িং ৭৮৭-৮ এর উদ্বোধন করা হয়। এ সময় বিমানের যাত্রীসেবার মান সততা ও নিষ্ঠার সাথে নিশ্চিত করার জন্য বিমানের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এরই মধ্যে আমি একটা নির্দেশ দিয়েছি সরকারি কর্মকর্তাদের যে যেখানে যাবেন, সেখানে যদি বাংলাদেশ বিমান যায় তবে তাতেই যেতে হবে। দেশে বন্ধ সব সকল বিমানবন্দরগুলো উন্নত করা হচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

বিমানের রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক কষ্ট করে বিমান কেনা হয়েছে, কাজেই এর রক্ষণাবেক্ষণ আন্তরিকতার সাথে দেখতে হবে।

এর আগে ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন সচিব মহিবুল হক, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল মোহাম্মদ ইনামুল বারী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মোকাব্বির হোসেনসহ মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটনের তৈরি ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ঢাকায় এসে পৌঁছায়। এ উড়োজাহাজ যুক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৬টি। সম্প্রসারিত বহর দিয়ে বিমান তার চলমান রুটসমূহে ফ্লাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি করছে। সেই সঙ্গে নতুন গন্তব্য সংযোজন প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছরের ১৩ মে ঢাকা-দিল্লি রুট চালু হয়েছে। আগামী ২৮ অক্টোবর মদিনা এবং নভেম্বর মাসে গুয়াংজু নতুন রুট চালু হবে। ম্যানচেস্টার, কলম্বো, মালে, টোকিও এবং নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা রয়েছে বিমানের। বিমানের ১০টি বোয়িংয়ের মধ্যে আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস নামে চারটি ড্রিমলাইনারের নাম পছন্দ ও বাছাই করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে। এর আগে পালকি, অরুণ আলো, আকাশ প্রদীপ, রাঙা প্রভাত নামে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর এবং মেঘদূত ও ময়ূরপঙ্খী নামে দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ নামও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এ প্রসঙ্গে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেকটা নাম আমি চেয়েছি একটু সুন্দরভাবে দিতে। আমাদের বাঙালি সংস্কৃতি ও পরিবেশের সাথে পরিচিত নাম হয়, সেভাবেই দেয়ার চেষ্টা করেছি।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৮ সালে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির ১০টি নতুন বিমান ক্রয়ের জন্য ২ দশমিক ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি চুক্তি করে। চুক্তি অনুযায়ী বোয়িং ইতোমধ্যেই চারটি ৭৭৭-৩০০ইআর ও দু’টি ৭৩৭-৮০০ এবং চারটি ড্রিমলাইনার বিমানকে হস্তান্তর করেছে।

২৭১ আসনের ‘রাজহংস’ বোয়িং ৭৮৭-৮ কে অন্যান্য বিমানের তুলনায় ২০ শতাংশ জ্বালানী সাশ্রয়ী বিমান হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। বিমানটি ঘণ্টায় ৬৫০ মাইল বেগে একটানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে সক্ষম।

বিমানটি ৪৩ হাজার ফুট উচ্চতায় ওয়াইফাই পরিষেবা দেবে। এর ফলে যাত্রীরা আকাশ থেকে ইন্টারনেটের সাহায্যে বিশ্বের যে কোনও স্থানে তাদের বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন।

এএইচএস/এসএমএম

আরও পড়ুন

Islami Bank