• ঢাকা
  • রবিবার, ০৯ আগস্ট, ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭
প্রকাশিত: মে ২৪, ২০২০, ০১:০৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২৪, ২০২০, ০১:০৯ পিএম

করোনাকালে ঝুঁকি নিয়ে ঈদযাত্রা

নৌ-ঘাট ও সড়কে ঘরমুখো মানুষের স্রোত

জাগরণ প্রতিবেদক
নৌ-ঘাট ও সড়কে ঘরমুখো মানুষের স্রোত
সংগৃহীত ছবি

মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও অটোরিকশা ভাড়া করেই ঈদে বাড়ি যাচ্ছে রাজধানীবাসী। অনেকের ব্যক্তিগত গাড়িই আবার রূপ নিয়েছে গণপরিবহনে। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটেও স্বাভাবিকভাবেই চলাচল করছে ফেরি।

গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও ব্যক্তিগত গাড়ি ও ঈদে ঘরমুখে মানুষকে পারাপার করছে ফেরিগুলো। এতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া উভয় ফেরিঘাটে ঘরমুখি মানুষের উপচেপড়া ভিড়।

রোববার (২৪ মে) সকাল থেকেই যাত্রীদের ভিড় রয়েছে দুই ঘাটে। বেলা বাড়ার সাথে যাত্রীর চাপও বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে, সামাজিক দূরত্ব মানছে কেউই। বরং গাদাগাদি করে ফেরিতে উঠা-নামা করছে মানুষ। আবার ফেরি থেকে নেমে যে যার মত তিন চাকার বিভিন্ন যানবাহনে উঠছে প্রতিযোগিতা করে। কেউ আবার ভাড়ার মোটর সাইকেলে উঠছে দ্রুত যাবার জন্য।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক আবু আবদুল্লাহু রনি জানান, এই নৌরুটে বর্তমান ৯টি ছোট বড় ফেরি চলাচল করছে। এ সময় পণ্যবাহী ট্রাক, মাক্রোবাস, প্রাইভেটকার ও অ্যাম্বুলেন্স নদী পারাপার করা হচ্ছে।

নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে, গাদাগাদি করে ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করছে প্রাইভেট কারগুলো। রোববার (২৪ মে) গাবতলী, আবদুল্লাহপুর, যাত্রাবাড়ীসহ ঢাকায় আসা-যাওয়ার সব পথ দিয়েই যাত্রীর আনাগোনার স্বাভাবিক চিত্র ফুটে ওঠে। পায়ে হেঁটেও ঢাকা ছাড়ছে অনেকে।

ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, লেগুনাতেও মানুষ চলাচল করছে ব্যাপক হারে। এতে করোনার সংক্রমণ ঝুঁকি বাড়লেও খুব একটা নজরদারি নেই প্রশাসনের। দেশে করোনা সংক্রমণের আশি ভাগেরও বেশি রাজধানীতে। তাই ঈদে রাজধানীবাসীর ঘরে ফেরায় বাড়ছে গ্রামে করোনা সংত্রমণের ঝুঁকি।

এসএমএম

আরও পড়ুন