• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০১৯, ০২:০৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০১৯, ০৮:৪৯ পিএম

স্ত্রীর স্বীকৃতি দাবি

লক্ষ্মীপুরে দগ্ধ তরুণীকে বাঁচানো গেল না

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা
লক্ষ্মীপুরে দগ্ধ তরুণীকে বাঁচানো গেল না

স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইতে এসে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে দগ্ধ চট্টগ্রামের তরুণী শাহেনূর আক্তার(২৪) মারা গেছেন। সোমবার (২২ এপ্রিল) সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

কমলনগর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আলমগীর হোসেন দগ্ধ তরুণীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, তরুণীর অগ্নিদগ্ধের ঘটনায় আলাউদ্দিন ও আবদুর রহমান নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা ওই তরুণীর দাবি করা স্বামী সালাউদ্দিনের ভাই।

এর আগে রোববার (২১ এপ্রিল) বিকেলে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরফলকন ইউনিয়নের আইয়ুবনগর এলাকার একটি সয়াবিন ক্ষেত থেকে দগ্ধ অবস্থায় শাহেনূরকে উদ্ধার করা হয়। রাতে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই তরুণী অভিযোগ করে বলে, স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় স্বামী সালাউদ্দিন তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে।

বিকেলে দগ্ধ অবস্থায় শাহেনূরকে স্থানীয় ইউপি সদস্য হাফিজ উল্লাহ ও গ্রাম পুলিশ আবু তাহের উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করে। শাহেনূরের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে রেফার্ড করা হয়। আগুনে ওই তরুণীর মুখ-হাতসহ শরীরের প্রায় ৪০ ভাগ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

শাহেনূর চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার সোনাগাজি গ্রামের জাফর আলমের মেয়ে।

জানা গেছে, সালাউদ্দিন স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরফলকন ইউনিয়নের আইয়ুবনগর এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করছে। সালাউদ্দিন পেশায় রিকশা চালক। তার বাবার নাম মহর আলী। কিন্তু প্রায় দেড় বছর আগে সালাউদ্দিনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল বলে রোববার সন্ধ্যা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জানিয়েছে শাহেনূর। স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতেই তিনি কমলনগর আসেন।

কমলনগর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আলমগীর হোসেন বলেন, দগ্ধ তরুণী ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। তরুণীর অগ্নিদগ্ধের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাধের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

কেএসটি