• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬
প্রকাশিত: মে ২১, ২০১৯, ০২:০২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২১, ২০১৯, ০২:০৬ পিএম

সেই ধর্ষকের বিয়ে হলো না, ঠাঁই হলো কারাগারে

চাঁদপুর সংবাদদাতা
সেই ধর্ষকের বিয়ে হলো না, ঠাঁই হলো কারাগারে

চাঁদপুরের সমালোচিত চার ধর্ষকের পছন্দের ধর্ষকের সঙ্গে বিয়ের পাত্র রাব্বিকে আদালত জামিন মঞ্জুর না করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। বিজ্ঞ আদালত তার বয়স ১৭ হওয়ায় গাজীপুর কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাজীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন, চার ধর্ষকের দুজনকে পূর্বে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রাব্বিকে বিভিন্ন জায়গায় ধরার জন্য মহড়া দিলেও অবশেষে সে  নিজেই চাঁদপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করেছে। আদালত তাকে গাজীপুর কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। সোমবার (২০ মে) রাব্বিকে গাজীপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রনি আরো বলেন, কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে চার ধর্ষকের আদায়কৃত ৫ লাখ ২০ হাজার টাকা ব্যাংকে জব্দ রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

ধর্ষক রাব্বি হাজিগঞ্জ উপজেলার ডাটরা শিবপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

ধর্ষিত কিশোরী এই ঘটনায় ছয় জনকে আসামি করে শুক্রবার (১০ মে) রাতে মামলা দায়ের করেন। এই মামলার বাকি আসামিরা হলো- ওই বাড়ির বিল্লাল হোসেনের ছেলে মেরাজ (২০) ও মাতাব্বর মোস্তফা কামাল (৬৫)। তারা পলাতক রয়েছে।

শনিবার (১১ মে) গাজী বাড়ীর রফিকুল ইসলামের ছেলে এমরান হোসেন (১৯) ও সিরাজুল ইসলামের ছেলে আরেফিন ওরফে আমিনুলকে (২০) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই সময় ইউপি মেম্বার অহিদুর রহমানকে আটক করে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য, প্রতিবেশী চার যুবকের ধর্ষণের ফলে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা হন এক কিশোরী। ধর্ষণের ঘটনায় গ্রামবাসী গ্রেপ্তার হওয়া ইউপি সদস্যের মাধ্যমে সালিশ করে চার যুবকের কাছ থেকে প্রায় ৫ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে ব্যাংকে জামা রাখে। সেই টাকা দিয়ে ধর্ষকদের মধ্যে ওই কিশোরীর পছন্দমতো পাত্রের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তা পণ্ড করে রাতে বিষয়টির দায়িত্ব নেয় পুলিশ। 

কেএসটি

Islami Bank