• ঢাকা
  • রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬
প্রকাশিত: মে ২১, ২০১৯, ০৬:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২১, ২০১৯, ০৬:১৭ পিএম

বগুড়ায় খালার লাঠির আঘাতে ভাগনি খুন

বগুড়া সংবাদদাতা
বগুড়ায় খালার লাঠির আঘাতে ভাগনি খুন
ভাগনিকে হত্যার অভিযোগে আটক খালা এবং তার ছেলেমেয়ে ও ছেলের বউ  ছবি : জাগরণ

বগুড়ায় জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে খালার লাঠির আঘাতে ভাগনি নাসিমা খাতুন (২৬) খুন হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২১ মে) বেলা ২টার দিকে জেলার শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের তাতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ৪ জনকে আটক করেছে। নিহত নাসিমা খাতুন ওই গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী মো. জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী।

আটককৃতরা হলেন নিহত নাসিমার খালা আব্দুল খালেকের স্ত্রী আঞ্জুয়ারা (৪০), ছেলে রাজু আহম্মেদ (২২), মেয়ে খালেদা খাতুন (১৫) ও রাজু আহম্মেদের স্ত্রী সানজিদা খাতুন (১৮)।

শেরপুর থানার এসআই পুতুল মোহন্ত ও স্থানীয়রা জানান, শেরপুরের মির্জাপুর ইউনিয়নের তাতলা গ্রামের কহির ফকিরের মেয়ে আঞ্জুয়ারার সাথে বড় বোন আজেনা বেগমের বাড়ির ২ শতক জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে ২১ মে মঙ্গলবার সকালে টয়লেট ব্যবহারকে কেন্দ্র করে দুই বোনের মধ্যে বিবাদ হয়। এতে আঞ্জুয়ারা ক্ষোভ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে দুপুর ২টার দিকে বোন আজেনা খাতুনকে ডেকে ছেলে রাজু আহম্মেদ, মেয়ে খালেদা খাতুন ও ছেলের বউ সানজিদা খাতুনকে সাথে নিয়ে তাকে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করেন।

এ সময় আজেনা বেগমের চিৎকারে তার মেয়ে মালয়েশিয়া প্রবাসী মো. জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী নাসিমা খাতুন এগিয়ে এলে তাকেও লাঠি দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এদিকে এ ঘটনায় পরপরই স্থানীয়রা ওই চারজনকে আটক করে গাছের সাথে বেঁধে থানা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘ঘটনাস্থলে গিয়ে ৪ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছি। তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এনআই

Islami Bank