• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০৪:২১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০৪:২১ পিএম

বিএসএফের বিরুদ্ধে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা
বিএসএফের বিরুদ্ধে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
আবদুল্লাহ মণ্ডলের লাশ ঘিরে স্বজনদের আহাজারি - ছবি : জাগরণ

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে আবদুল্লাহ মণ্ডল (৪৬) নামের এক বাংলাদেশি নাগরিককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (১৪ আগস্ট) ভোরে সীমান্ত অতিক্রম করে গরু আনতে গেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ স্থানীয় গ্রামবাসীর।

তবে ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে বিজিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। নিহত আবদুল্লাহ মণ্ডল দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর গ্রামের মৃত গোলাম রসুল মণ্ডলের ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাখার উদ্দীন জানান, বুধবার ভোরে আবদুল্লাহসহ ৩-৪ জন বাংলাদেশি ঠাকুরপুর সীমান্তে গরু আনতে যান। তারা সীমান্তের ৮৯/৯০ মেইন পিলারের কাছে অবস্থান করার সময় বিএসএফের মালুয়াপাড়া ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের ধাওয়া দেয়। এ সময় তিনজন পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও বিএসএফের হাতে ধরা পড়েন আবদুল্লাহ।

নিহত আবদুল্লাহর ভাই হাবিবুর রহমানের অভিযোগ, বিএসএফের হাতে ধরা পড়ার পর তাকে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। হত্যার পর তার লাশ ফেলে রেখে যাওয়া হয় সীমান্তের জিরো পয়েন্টে। খবর পেয়ে সকালে গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসেন।

দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, নিহত আবদুল্লাহর শরীরের বেশ কয়েকটি স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হবে বলে তিনি জানান।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক সাজ্জাদ সরোয়ার পিএসসি বলেন, ‘ঠাকুরপুর সীমান্তে একজন বাংলাদেশি নাগরিকের লাশ উদ্ধারের খবর আমরা পেয়েছি। তবে কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে, এ বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।’

এনআই

আরও পড়ুন