• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৫:২৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৫:২৩ পিএম

ভূঞাপুরের সাংবাদিক মুকুল আর নেই

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা
ভূঞাপুরের সাংবাদিক মুকুল আর নেই
খন্দকার এনামুল হক মুকুল  -  ছবি : জাগরণ

দি এশিয়ান এজ পত্রিকার ভূঞাপুর উপজেলা প্রতিনিধি, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের কার্যকরী সদস্য খন্দকার এনামুল হক মুকুল (৪৮) মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে পাঁচটায় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিউন)।

এর আগে তিনি মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ভূঞাপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ-সংক্রান্ত কাজ শেষ করে বাড়ি ফেরেন। বিকেল ৪টায় উপজেলার মাটিকাটা নামক স্থানে সংবাদ সংগ্রহে গেলে সেখানে হঠাৎ করে বুকে ব্যথা অনুভব করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে সিএনজিচালিত অটোরিকশাযোগে ভূঞাপুর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি বেশ কিছুদন যাবৎ হার্টের সমস্যায় ভুগছিলেন। এর আগে উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনি ভারতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

খন্দকার এনামুল হক মুকুল দৈনিক জনকণ্ঠের বিনোদন পাতায় লেখা দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর দৈনিক সরেজমিন বার্তা ও বর্তমানে ইংরেজি দৈনিক এশিয়ান এজ পত্রিকার ভূঞাপুর উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি বাবা-মা, স্ত্রী, দুই ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন রেখে যান।

বুধবার সকাল ৯টায় তার জানাজার নামাজ ভূঞাপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে ছাব্বিশা কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভূঞাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম অ্যাডভোকেট, পৌর মেয়র মাসুদুল হক মাসুদ, ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আব্দুছ ছালাম, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনুল ইসলাম তরফদার বাদল, সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহীউদ্দিন, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আসাদুল ইসলাম বাবুল, সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

সাংবাদিক মুকুলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে ভূঞাপুর প্রেসক্লাব। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের জন্য সমবেদনা প্রকাশ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঝোটন চন্দ ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আসলাম হোসাইন।

এনআই

আরও পড়ুন

Islami Bank