• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০১৯, ০৭:২৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ১, ২০১৯, ০৭:২৫ পিএম

চাঁদাবাজির অভিযোগে ৭ পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত

খুলনা সংবাদদাতা
চাঁদাবাজির অভিযোগে ৭ পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত

চাঁদাবাজি ও আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে খুলনা জেলা পুলিশের গোয়েন্দা (ডিবি) শাখার উপপরিদর্শকসহ (এসআই) সাত পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

খুলনা জেলা পুলিশ সুপার শফিউল্লাহর নির্দেশে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়। বরখাস্তের আদেশ সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে কার্যকর হয়েছে। সাতজনকেই জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বরখাস্ত ডিবি সদস্যরা হলেন এসআই মো. লুৎফর রহমান, এএসআই কেএম হাসানুজ্জামান, এএসআই শেখ সাইদুর রহমান, এএসআই গাজী সাজ্জাদুল ইসলাম, কনস্টেবল মো. কামরুজ্জামান, কনস্টেবল মো. জামিউল হাসান ইমন ও কনস্টেবল মো. রুবেল।

খুলনা জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. আনিচুর রহমান জানান, বরখাস্তকালীন সময়ে তারা খোরপোশ পাবেন। আর পুলিশ লাইনে নিয়মিত পিটিসহ অন্যান্য কার্যক্রমের সঙ্গে থাকবেন।

খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ জানান, ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর থেকে একটি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। অবৈধ আর্থিক লেনদেনের বিষয় নিয়ে আমরা জিরো টলারেন্স অবস্থানে রয়েছি। তাই সোমবার রাতে ডিবির সাত পুলিশকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরপর তদন্ত করে প্রকৃত রহস্য উন্মোচন করা হবে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে চাকরি থেকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে।

সম্প্রতি ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর এলাকার আব্দুল্লাহ মোটরস নামের একটি মোটরসাইকেলের শো-রুমে অভিযান চালান ডিবির উল্লিখিত সদস্যরা। সেখান থেকে ওই শো-রুম মালিকের ছেলেকে আটক করে তারা ১০ লাখ টাকা দাবি করেন। পরে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগীরা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন।

এনআই

আরও পড়ুন