• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৫, ২০১৯, ০৭:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৫, ২০১৯, ০৭:৪২ পিএম

শরণখোলা আ.লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আকন আর নেই

শরণখোলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা
শরণখোলা আ.লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আকন আর নেই
মো. কামাল উদ্দিন আকন  -  ছবি : সংগৃহীত

শরণখোলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দিন আকন (৭২) আর নেই। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল সোয়া ৬টায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না ল্লিলাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বৃহস্পতিবার ভোররাত সাড়ে তিনটায় হঠাৎ অসুস্থ হলে খুলনার বেসরকারি হাসপাতাল ফোরটিকসে নেয়ার পর সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, এক মেয়ে, শতবর্ষী বাবা, তিন ভাইসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন, রাজনৈতিক সহচর ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

কামাল উদ্দিন আকন ১৯৪৭ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর রায়েন্দা বাজারের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭২ সালে রায়েন্দা পাইলট হাইস্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। ১৯৭০ সালে তৎকালীন থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ২০০৪ সাল থেকে টানা ১৫ বছর ধরে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ গত ২৫ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে তিনি পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন। এছাড়া রায়েন্দা ইউনিয়নের সদর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য এবং পরে দুবার ইউপি চেয়ারম্যান এবং তিনবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

মরহুম কামাল উদ্দিন আকন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন আকনের মেজো ছেলে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক প্রয়াত শহীদ মনিরুজ্জামান বাদলের বড় ভাই।

তার মৃত্যুর সংবাদ মুহূর্তের মধ্যে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে দলমত-নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। তাকে শেষবারের মতো দেখার জন্য মানুষের ঢল নামে। এ সময় এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

বাগেরহাটের জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জমান টুকু, জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিট্রেট শাহিনুজ্জামান, সহকারী পুলিশ সুপার রিয়াজুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরদার মোস্তফা শাহিন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ, ঢাকা দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহম্মেদ, মোরেলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ আলম টুকু, কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম মাহফুজুর রহমানসহ বহু গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত হয়ে নিহতের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

মরহুমের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন ও শোক প্রকাশে উপজেলা সদরের রায়েন্দা বাজারের ব্যবসায়ীরা সমস্ত দোকানপাট ও স্কুল-কলেজসহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেন।

বৃহস্পতিবার বাদ আসর উপজেলা সদরের রায়েন্দা সরকারি পাইলট হাইস্কুলের মাঠে জানাজা শেষে রায়েন্দা বাজারস্থ পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এনআই

আরও পড়ুন