• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২০, ০৯:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৬, ২০২০, ০৯:৫২ পিএম

কালীগঞ্জে প্রবাসী নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) সংবাদদাতা
কালীগঞ্জে প্রবাসী নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

গাজীপুরের কালীগঞ্জে সীমা বেগম (৪০) নামের সৌদি আরব প্রবাসী এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রহস্যজনক এই মৃত্যুকে কেউ কেউ আত্মহত্যা বললেও অনেকে আবার বলছেন হত্যাকাণ্ড। তবে পুলিশ বলছে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা জানা যাবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর।

এর আগে সকালে উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের জামালপুর (গোল্লারটেক) গ্রাম থেকে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না দিয়ে ঝুলন্ত ওই প্রবাসী নারীর মরদেহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় উদ্ধার করা হয়।

নিহত সীমার বাবার নাম আবুল কাশেম। স্বামীর বাড়ি মুন্সিগঞ্জে। স্বামীর সাথে বছর চারেক আগে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। স্বামী পরিত্যক্তা হয়ে জামালপুর (গোল্লারটেক) গ্রামে নানা মৃত রহম আলী সরকারের বাড়িতে এক ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে থাকতেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ৬টার দিকে বাড়ির আশপাশে হাঁটাহাঁটি করেছেন। কিন্তু ৭টার দিকেই এ ঘটনা ঘটে। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) রাতে মেয়ের সাথে কোনো বিষয় নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয়েছে বলেও জানায় সূত্র।

ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান ফারুক মাস্টার জানান, সকালে তাদের বাড়ির কাছ দিয়ে মর্নিং ওয়াক করে যাওয়ার সময় কান্নাকাটির শব্দ শুনে বাড়িতে গিয়ে দেখেন ঘরের আড়ার সাথে ওড়না দিয়ে বাঁধা সীমা বেগমের মরদেহ ঝুলছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাশ নিচে নামিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। কিন্তু তার আগেই মৃত্যু হয় বলে জানান হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক।

তিনি আরো জানান, স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ির পর সীমা ৩ বছর যাবৎ সৌদি আরব প্রবাসী ছিলেন। ৫ মাসের ছুটিতে এসেছিলেন। ইতিমধ্যে ছুটির ৪ মাস অতিবাহিত হয়ে গেছে। এক মাস পর পুনরায় সৌদি আররে যাওয়ার কথা ছিল তার।

কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আর্শাদ মিয়া জানান, প্রাথমিক সুরতহাল শেষে মরদেহ গাজীপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে বোঝা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।

এনআই

আরও পড়ুন