• ঢাকা
  • শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৩, ২০২০, ০৫:২৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৩, ২০২০, ০৫:২৪ পিএম

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি

মিটার না দেখে অতিরিক্ত বিল, ভোগান্তিতে গ্রাহক

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা
মিটার না দেখে অতিরিক্ত বিল, ভোগান্তিতে গ্রাহক

‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ স্লোগান ধারণ করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের  সহযোগিতায় ২০১৯ সালে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়িত উপজেলায় রুপান্তরিত হয়।

কিন্তু গ্রাহকের ওপর নানাভাবে হয়রানি ও অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিলসহ মনগড়া বিদ্যুত বিলের ফলে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুত সমিতির গ্রাহক হয়রানি চরমে পৌঁছেছে বলে অভিযোগ গ্রাহকদের।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, গ্রাহক সেবা শুধু মুখেই।মিটার না দেখে অতিরিক্ত ও ভুয়া বিলে চরম ভোগান্তির শিকার তারা। গ্রাহকদের সমস্যা সমাধানে সমিতির পক্ষ থেকে নেই কোনও উদ্যোগ বরং অভিযোগ করলে উল্টো নতুন হয়রানি করা হয়।

বাড়ি বাড়ি গিয়ে মিটার দেখে বিল করার নিয়ম থাকলেও মিটার না দেখে অনুমাননির্ভর বিল তৈরি করা হচ্ছে। তাতে করে অতিরিত্ত টাকা গুণতে হচ্ছে গ্রাহকদের।

উপজেলার ইনাতনগর গ্রামের মনোহর আলী নামে এক গ্রাহক জানান, গ্রীষ্মে সর্বোচ্চ ২০০ থেকে ৩০০ টাকা বিল আসলেও গত ৩ মাসে ফ্যান ছাড়া শুধু লাইট ব্যবহার করে দুই-তিনগুণ বেশি বিল এসেছে।

একই রকম অভিযোগ করেন চন্দ্রপুর গ্রামের রুহুল আমিনও। তিনি বলেন, পল্লী বিদ্যুতের লোকজন মনগড়া বিল তৈরি করছে। কখনও মিটার দেখে, কখনও না দেখেই বিল তৈরি করছে তারা। শীতে বিদ্যুত কম ব্যবহার হলেও গ্রীষ্মের চেয়ে দ্বিগুণ বিল পরিশোধ করতে হচ্ছে।

সরেজমিনে কর্তৃপক্ষের বক্তব্য পেতে উপজেলা পল্লী বিদ্যুত সমিতির অফিস গিয়েও দায়িত্বরত কোনও কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। তবে সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুত সমিতির জেনারেল ম্যানেজার অকিল কুমার সাহার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গ্রাহক লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এসএমএম