• ঢাকা
  • রবিবার, ০৫ জুলাই, ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ৯, ২০২০, ০৯:২১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ৯, ২০২০, ০৯:২১ পিএম

ঠাকুরগাঁওয়ে ৬ গ্রাম নিজেরাই ‘লকডাউন’ করলেন বাসিন্দারা

জাগরণ ডেস্ক
ঠাকুরগাঁওয়ে ৬ গ্রাম নিজেরাই ‘লকডাউন’ করলেন বাসিন্দারা
নিজ উদ্যোগে ৬টি গ্রামের আটটি প্রবেশ পথ বাঁশের বেড়া দিয়ে লকডাউন করে দেয়া হয়েছে ● ইউএনবি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৬ গ্রামের মানুষ নিজেরাই তাদের গ্রামকে ‘লকডাউন’ করেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, জগন্নাথপুর ইউনিয়নের আদর্শ কলোনী, রসুলপুর, বাঙালিপাড়া, বিহারিপাড়া, গুচ্ছগ্রাম ও বাহাদুরপাড়ার লোকজন গ্রামে প্রবেশের সবকটি রাস্তা বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে আগাম সতর্কতা হিসেবে তারা এ ব্যবস্থা নিয়েছেন।

প্রবেশপথে টানানো হয়েছে লাল পতাকা। গ্রামে নিজস্ব কোনও যানবাহন বা মানুষ প্রবেশ করার সময় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে এবং প্রবেশ পথে হাত ধোয়ার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

হ্যান্ডমাইকে করে অবিরাম এলাকাবাসীকে সচেতন করা হচ্ছে ঘরে থাকার জন্য। স্থানীয়রা জরুরি প্রয়োজন ছাড়া গ্রামের বাইরে যাচ্ছেন না।

আদর্শ কলোনির বাসিন্দা মুশফিক আল মারুফ বলেন, মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) রাতে করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর-গলাব্যথা নিয়ে ঢাকার আদাবর ও নারায়ণগঞ্জ থেকে পাঁচজন লোক এই এলাকায় আসে। প্রশাসন তাদের নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। এতে এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এলাকাবাসীরা নিজ উদ্যোগে ৬টি গ্রামের আটটি প্রবেশ পথ বাঁশের বেড়া ও লাল পতাকা দিয়ে টানিয়ে লকডাউন করা হয়েছে বলে জানান একই গ্রামের আবদুল্লাহ আল নোমান।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, সচেতন গ্রামবাসী নিজেদের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ  থেকে বাঁচতে যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসনীয়। এভাবেই সব গ্রামের মানুষ সচেতন হলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব।

ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজুর রহমান সরকার বলেন, বুধবার (৮ এপ্রিল) আদর্শ কলোনী থেকে দু’জনের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর পাঠানো হয়েছে। ইউএনবি।

এসএমএম

আরও পড়ুন