• ঢাকা
  • সোমবার, ২৫ মে, ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: মে ২১, ২০২০, ০৮:১৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ২১, ২০২০, ০৮:২৫ পিএম

লকডাউন অমান্য করে বিকল্প পথে ঈদযাত্রা

রডের নিচে চাপা পড়েছিল ১৩টি মরদেহ

মাসুম লুমেন, গাইবান্ধা
রডের নিচে চাপা পড়েছিল ১৩টি মরদেহ
মরদেহ ঘিরে এলাকাবাসীদের জটলা ● জাগরণ

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে রডবাহী একটি ট্রাক উল্টে ১৩ জন নিহত হয়েছে।

জানা গেছে, নিহতরা সবাই লকডাউন অমান্য করে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ওই ট্রাকযোগে ঢাকা থেকে ঈদ উপলক্ষে বাড়ি ফিরছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) সকাল আনুমানিক ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা সবাই পুরুষ। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাক ও মরদেহ হাইওয়ে পুলিশ গোবিন্দগঞ্জে নিয়ে গেছে।

ঘটনার পর থেকে ট্রাকচালক ও তার সহকারী পলাতক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঝড়ের রাতে ঢাকা থেকে আগত রংপুরগামী রড বোঝাই (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৩-৫৬৯৮) ট্রাকটি সকালে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার দুবলাগাড়ী নামক স্থানে পৌঁছলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকটি রাস্তার পাশে খাদে উল্টে যায়। খবর পেয়ে পলাশবাড়ী থানা, গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ও গোবিন্দগঞ্জের ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ট্রাক এবং রডগুলো সরাতে গিয়ে দেখতে পান ত্রিপল দিয়ে ঢাকা ১৩ জন যাত্রীর মরদেহ রডের নিচে চাপা পড়ে আছে। পরে তাদের মরদেহ রডের নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে তিনটি শিশু রয়েছে।

পলাশবাড়ী থানার ওসি মাসুদুর রহমান দৈনিক জাগরণকে জানান, প্রবল হাওয়া ও বৃষ্টিপাতের মধ্যে ঢাকা থেকে রংপুরগামী রডবাহী ট্রাকটি ওই এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে উল্টে খাদে পড়ে যায়। এতে ট্রাকযোগে ঢাকা থেকে আসা ১৩ যাত্রী ওই ট্রাকচাপায় ঘটনাস্থলে নিহত হয়। 

তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের পরিচয় পাওয়া না গেলেও তাদের মধ্যে তিনজন রংপুরের পীরগঞ্জের বাসিন্দা বলে তিনি জানান।

তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা করে।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের ওসি আবদুল কাদের জিলানী বলেন, প্রবল বৃষ্টির কারণে স্থানীয় লোকজন দুর্ঘটনার বিষয়টি টের পাননি।

হাইওয়ে পুলিশ খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় খাদে পড়ে যাওয়া ট্রাকের নিচ থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে। 

জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন ও পুলিশ সুপার মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এসএমএম