• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: জুলাই ২৫, ২০২০, ০৬:৩৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ২৫, ২০২০, ০৬:৩৫ পিএম

গাইবান্ধায় স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন, আটক স্বামী

 গাইবান্ধা সংবাদদাতা
গাইবান্ধায় স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন, আটক স্বামী

গাইবান্ধায় রোজিনা বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধূকে ছুরি দিয়ে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছামিউল নামের এক পাষণ্ড স্বামী। স্ত্রী হত্যার দায়ে হত্যাকারী ছামিউলকে আটক করেছে সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাত ৮টার দিকে উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের পাইটকাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গৃহবধূ রামধন (মওয়ামারী) গ্রামের ওয়ারেছ আলীর মেয়ে এবং হত্যাকারি স্বামী ছামিউল পাইটকাপাড়া গ্রামের রহমান মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে পোশাক শ্রমিকের কাজ করতেন গৃহবধূ রোজিনা। সেখানে তার স্বামী ছামিউল  কাঠমিস্ত্রীর কাজ করতেন। তখন থেকেই দু’জনের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। প্রায় একমাস আগে ঢাকা থেকে রোজিনা তার বাবার বাড়িতে চলে আসে। পরে  ছামিউল স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সহায়তায় সালিসের মাধ্যমে রোজিনাকে তার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসেন। 

এদিকে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শুক্রবার (২৪ জুলাই) সকাল থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এরপর সন্ধ্যায় বাড়ি সংলগ্ন পাশের বিলে মাছ ধরার কথা বলে ওই গৃহবধূকে বিলে নিয়ে যায় ছামিউল। বিলের মাঝে নিয়ে গিয়ে ছুরি (গাছের ডাল কাটার জন্য) দিয়ে গলায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাতে থাকলে রোজিনার  চিৎকার শুনে তার শ্বশুর-শাশুড়ি এগিয়ে এলে ছামিউল তাদেরকে ধাক্কা দিয়ে পানিতে ফেলে দেয়। 

এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ছামিউল পালিয়ে যায় এবং ঘটনা স্থলেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন গৃহবধূ রোজিনা। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। 

এ ব্যাপারে সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহিল জামান বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার স্ত্রীর পরকিয়া প্রেম ও উচ্ছৃঙ্খল আচরণের কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, আসামি প্রথমে তার স্ত্রীর যোনীতে তিনটি কোপ দেন। এরপর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ৮টি কোপ দেন। এরপর গলায় ছুরি দিয়ে উপর্যুপরি চোট দিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে আসামি। এ ঘটনায় নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।


এম