• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৯, ২০২০, ১০:৫৪ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৯, ২০২০, ১০:৫৪ এএম

চাটমোহরে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

চাটমোহর (পাবনা) সংবাদদাতা  
চাটমোহরে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

পুরো নাম মুশফিক খান তাসিম। স্বেচ্ছাসেবী বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় স্থানীয় সচেতন তরুণদের কাছে পরিচিতি ছিল তাসিম নামেই। ৯ম শ্রেণির ছাত্র তাসিম বুধবার (২৮ অক্টোবর) আত্মহত্যা করেছে নিজের বাড়িতে। এ কিশোরের অপমৃত্যু নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অভিমত প্রকাশ করেছেন তার সহকর্মী ও পরিচতজনদের অনেকেই। একজন সচেতন কিশোরের আত্মহত্যার বিষয়টি ভাবিয়ে তুলছে স্থানীয় বোদ্ধাদের।  

তাসিমের বাড়ি পাবনার চাটমোহরের আফ্রাতপাড়া মহল্লায়। তার বাবার নাম আব্দুল মজিদ, তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুবাই থাকেন। তার মায়ের নাম মমতাজ বেগম, স্থানীয় ডি এ জয়েন উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুলে শিক্ষকতা করেন তিনি। মুশফিক তাদের একমাত্র সন্তান। মায়ের স্কুলের ছাত্র ছিল সে। স্থানীয় নাট্য সংগঠনের সদস্য ছিল সে।  

তাসিমের প্রতিবেশিরা জানায়, ঘটনার সময় বাড়িতে তাসিম ছাড়া আর কেউ ছিল না। ঘটনার কয়েক ঘণ্টা আগে ছেলেকে গালমন্দ করে বাপের বাড়ি গিয়েছিলেন মমতাজ বেগম। তাসিমের বাড়ির পাশেই তার নানার বাড়ি। সেখান থেকে বাড়ি ফিরে দেখেন ছেলের রুমের দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করলে সাড়া না পাওয়ায় স্বজনদের সহায়তায় দরজা ভেঙ্গে ফেলা হয়। তখনই দেখতে পাওয়া যায়- সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ঝুলছে তাসিম। দ্রুত উদ্ধার করে চাটমোহর সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু ডাক্তার জানায়, হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছে তাসিম।  

এলাকাবাসী আরো জানায়, বেশ কয়েকদিন ধরেই বাড়িতে ইন্টারন্টে সংযোগ দিতে মায়ের কাছে আবদার করছিল তাসিম। কিন্তু ছেলে ঠিকমতো পড়ালেখা করবে না এমন আশঙ্কা থেকে সংযোগটি নিতে আপত্তি করছিলেন মমতাজ বেগম।

এ প্রসঙ্গে চাটমোহর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশের সুরতহাল শেষে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ছেলের এমন মৃত্যুতে বারবার মুর্ছা যাচ্ছেন মমতাজ বেগম। তার আহাজারিতে স্বজনসহ প্রতিবেশিরা ধরে ধরে রাখতে পারছেন না চোখের অশ্রু। 

জাগরণ/এমকে/এমআর