• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৯, ২০২০, ০১:০৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৯, ২০২০, ০১:০৫ পিএম

আর্থিক সংকটে বন্ধ রাজবাড়ী সুইমিং পুল

রাজবাড়ী সংবাদদাতা
আর্থিক সংকটে বন্ধ রাজবাড়ী সুইমিং পুল

আর্থিক সংকট ও পানির সমস্যায় দীর্ঘ প্রায় এক বছর ধরে জরাজির্ন অবস্থায় বন্ধ রয়েছে আন্তর্জাতিক মানের রাজবাড়ীর একমাত্র রাজবাড়ী সুইমিং পুল। ফলে প্রতিভা বিকাশে ব্যর্থ হচ্ছে জেলার সাঁতারুরা।

জেলা ক্রীড়া সংস্থা জানায় বন্ধ থাকা সুইমিং পুলটি চালুর উদ্যোগ নেয়া হলেও অর্থনৈতিক সংকটে তা ব্যাহত হচ্ছে। এদিকে সুইমিং পুলটি চালু করার আশ্বাস দিয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।

বিভিন্ন সময় জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে জেলা ক্রীড়া সংস্থা বন্ধ থাকা সুইমিং পুলটি চালুর উদ্যোগ নিলেও অর্থনৈতিক ও পানির সমস্যায় বার বারই বন্ধ হয়ে যায় সকল কার্যক্রম। জেলার ঐতিহ্য রক্ষা ও বিশ্ব দরবারের বড় বড় আসরে সাঁতারে গুরৃত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে বন্ধ থাকা সুইমিং পুলটি সংস্কার করে চালুর দাবি জেলাবাসীসহ ক্রীড়া সংস্থার। 

দেশ-বিদেশে ব্যাপক সুনাম কুড়িয়েছেন রাজবাড়ীর সাঁতারুরা। অলেম্পিকে সাঁতারসহ বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছে রাজবাড়ীর ডলি আক্তার, লায়লা নূর, নিবেদিতা দাসসহ অনেকে। কিন্তু সেই প্রতিনিধিত্ব করা সাঁতারুদের জেলা রাজবাড়ী‌তে থাকা আন্তর্জা‌তিক মা‌নের সুইমিং পুলটি বন্ধ থাকায় সাঁতার শেখা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শিশু, কিশোর-কিশোরী, যুবক-যুবতিসহ সবাই। ফলে জেলায় পানিতে ডুবে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটছে অনেক। দীর্ঘ দিন সুইমিং পুলটির সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সুইমিং পুলটির একটি পরিত্যক্ত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। নষ্ট হচ্ছে সুইমিং এর চৌবাচ্চার টাইলস।

জানা গেছে, ২০০৩ সালে রাজবাড়ি শহরে ৩ একর জমির উপর নির্মিত হয় আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং পুল।তৎকালিন কমিটি ২০০৩ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত সুইমিং পুলটির কার্যক্রম চালু রাখে। এবং সেখানে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে উঠে এসেছে বহু সাঁতারু। কিন্তু পরবর্তীতে ২০১১ সালে নতুন কমিটি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে চালু করলেও বিগত কমিটির প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ টাকার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ও বর্তমানে আয়রন ফিল্টার মেশিনের অভাবে পানির সমস্যা এবং ডিউব টিউবওয়েল নষ্ট হয়ে যাওয়াসহ সুইমিং পুলের সার্বিক মেইনটেন্যান্স খরচের জোগান না দিতে পরায় সুইমিং এর কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

২০১৪ সালের তৎকালীন জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম বয়স ভিত্তিক সাঁতার শেখা ও সুইমিং পুলটি পুনরায় চালুর উদ্যেগ নেন। তারপর থেকে দীর্ঘ দিন চালু থাকলেও প্রায় এক বছর ধরে আবার একই কারণে বন্ধ হয়ে যায় সুইমিং পুলটির সব ধরনের কার্যক্রম। যে কারণে চলতি বছরের ২৯ আগষ্ট যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আব্দুল করিম সুইমিং পুলটি পরিদর্শন করেছেন এবং সংস্কার করে দ্রুত পুনরায় চালুর আশ্বাস দিয়েছেন।

এদিকে সুইমিং পুলটি বন্ধ থাকায় সুইমিং এর টাইলসে ফাটল ও পানির আয়রনে লাল রঙে টাইলসে কালার নষ্ট হতে শুরু করেছে এবং পরিচর্যার অভাবে মেইন সড়ক থেকে সুইমিং পুলে যাবার রাস্তাটিও ঘাসে ঢেকে আছে। এছাড়া সুইমিং পুলটির চারপাশে বড় বড় ঘাস জন্ম নিয়েছে এবং সুই‌মিং পুল‌টি দুই পা‌শের ওঠার সি‌রিতে ময়লা আবর্জনায় ভরা। এ অবস্থায় স্থানীয়, জেলা ক্রীড়া সংস্থ‌া সুই‌মিং পুল‌টি সংষ্কার ক‌রে পুনরায় চালু ক‌রলে সাঁতারে আবা‌রো অলেম্পিকসহ বড় বড় আসরে রাজবাড়ীর ছে‌লে মে‌য়েরা প্রতি‌নি‌ধিত্ব কর‌বে ব‌লে সবার আশা, সেই সাথে ছোট বড় সবাই এখানে সাঁতার শিখ‌তে পারবে। তাই দ্রুত সুই‌মিং পুল‌টি চালুর জন্য যথাযথ কর্তৃপ‌ক্ষের হস্ত‌ক্ষেপ কামনা ক‌রেন।

সুইমিং পুলটিকে পুনরায় চালু করে সাঁতারে রাজবাড়ীর সোনালী অতীত ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নেয়ার দাবি জেলার ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের।

জাগরণ/আরআর/এমআর