• ঢাকা
  • বুধবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৯, ২০২০, ১০:৪১ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ১৯, ২০২০, ১০:৪১ এএম

ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনেও অচল নওগাঁ 

নওগাঁ সংবাদদাতা
ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনেও অচল নওগাঁ 

নওগাঁয় অভ্যস্তরীণ ও দূরপাল্লার দুটি রুট দখলের প্রতিবাদে জেলার অভ্যন্তরীণ সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। বুধবার (১৮ নভেম্বর) সকাল থেকে জেলার বালুডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে অভ্যন্তরীণ সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ আছে। বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

মলিক-শ্রমিক দ্বন্দ্বের জেরে নওগাঁ দ্বিতীয় দিনেও বৃহস্পতিবারেও সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। বুধবার সকাল থেকে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় নওগাঁ জেলা বাস মালিক সমিতি। এতে সকাল থেকে শহরের বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে জেলার অভ্যন্তরীণ রুটে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। তবে শহরের পার-নওগাঁ আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল থেকে অন্য জেলার মালিক সমিতির কিছু বাস আন্তঃজেলা রুটে চলাচল করছে। এদিকে হঠাৎ করে কোনো ঘোষণা ছাড়াই বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। জেলার অভ্যন্তরীণ কোনো রুটে বাস চলাচল না করায় শহরের বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে অনেক যাত্রীকে বেশি টাকা ভাড়া দিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও ভ্যানে চড়ে বিভিন্ন গন্তব্যে যেতে হচ্ছে। নওগাঁ জেলা মালিক সমিতির বাস চলাচল বন্ধ থাকায় আন্তঃজেলা রুটে কম বাস চলাচল করায় ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দূরপাল্লাগামী যাত্রীরাও দুর্ভোগে পড়েছেন। 

নওগাঁ জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজনের চাঁদাবাজী সীমাহীন আকার ধারণ করেছে। এছাড়া রুট পারমিট না নিয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা জোর করে তাদের নিজস্ব বাস বিভিন্ন রুটে চালাচ্ছে। এভাবে বাস চালানো অবৈধ। বার বার বলা সত্ত্বেও চাঁদাবাজী ও অবৈধভাবে বাস চলাচল বন্ধ না করায় মালিক সমিতি বাধ্য হয়ে বাস চলাচল বন্ধের মতো ঘোষণা নিয়েছে। এ প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক হারুন-অর-রশীদ বলেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য বাস মালিক সমিতি ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আশা করছি দ্রুতই সমাধান হবে। 

জাগরণ/এমআর