• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ২, ২০২১, ১২:০৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ২, ২০২১, ১২:০৪ পিএম

ট্রেনের বগি বৃদ্ধিসহ ১০ দফা দাবিতে ধর্মঘট

ট্রেনের বগি বৃদ্ধিসহ ১০ দফা দাবিতে ধর্মঘট

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনে আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি ছাড়াও ট্রেনের বগি বৃদ্ধিসহ ১০ দফা দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট করেছে গাজীপুর প্যাসেঞ্জার্স কমিউনিটি।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) সকাল ৭টা থেকে ৮টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী শহরের জয়দেবপুর রেল জংশনে এই অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি হয়।

দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি, ট্রেনের বগি বৃদ্ধি, জয়দেবপুর রেল ক্রসিংয়ে ওভার ব্রিজ নির্মাণ, জয়দেবপুর স্টেশনে ট্রেনের আসন বৃদ্ধি, জয়দেবপুর রেলজংশনকে আধুনিকায়ন এবং নারী যাত্রীদের জন্য বগি সংযোজন।

গাজীপুর প্যাসেঞ্জার্স কমিউনিটির সভাপতি প্রকৌশলী সামসুল হক অভিযোগ করে বলেন, "করোনার সময়ে ‘অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প” নামে একটি প্রকল্প চালু করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এর মাধ্যমে রেলওয়ে পরিচালিত ট্রেনগুলোতে আসনবিহীন যাত্রী নিয়ন্ত্রণ করা হয়। তবে বেসরকারিভাবে পরিচালিত ট্রেনগুলো চলেছে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে। অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়ায় সীমাহীন কষ্টে পড়তে হয় গাজীপুর থেকে ঢাকায় যাতায়াতকারী নিয়মিত যাত্রীদের।"

অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প’ না করে সেটিকে 'অতিরিক্ত যাত্রী ম্যানেজমেন্ট প্রজেক্ট' করার দাবি জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, "গাজীপুরে ট্রেনের স্টপেজ না থাকা এবং চাহিদা অনুযায়ী টিকেট না পাওয়ার কারণে যাত্রীদের এয়ারপোর্ট থেকে যাতায়াত করতে হয়। ফলে এয়ারপোর্ট-গাজীপুর যাওয়া-আসা সড়কপথে বাড়তি যাত্রী চাপ সৃষ্টি করছে এবং যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ছে।"

১০ দফা দাবি পূরণ না হলে ভবিষ্যতে আরও কঠোর কর্মসূচি নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা হাতেম আলী, আওয়ামী লীগ নেতা আনিছুর রহমান আরিফ, হোসনে আরা সিদ্দিকা জুলি, মোহাম্মদ শরীফ হোসাইন।