• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ মে, ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১, ০৩:২৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৬, ২০২১, ০৩:৪৭ পিএম

শুঁটকি পল্লিতে শ্রমিকের উপচে পড়া ভিড়

শুঁটকি পল্লিতে শ্রমিকের উপচে পড়া ভিড়

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে শুঁটকি পল্লিতে প্রায় চার শতাধিক শ্রমিক শুঁটকি তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। দেশে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৩ দফা বিধিনিষেধ জারি করে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এই বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে পল্লিতে নারী-পুরুষ শ্রমিকদের পদচারণ দেখা গেছে। 

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বউ বাজার এলাকা ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়। এতে আতঙ্কে রয়েছে ওই এলাকার মানুষ।

স্থানীয়রা জানান, প্রশাসনের নাকের ডগায় বিভিন্ন প্রজাতির মাছের শুঁটকি তৈরিতে কাজ করছে তারা। এ ছাড়া প্রতিটি হাট বাজারে মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা যায়। প্রতিদিনের মতো চরমোন্তাজ থেকে ছেড়ে গেছে যাত্রী ও মালবাহী ট্রলার। এতে উপজেলা প্রশাসন ও রাঙ্গাবালী থানার নানাবিধ কার্যক্রম চলমান থাকলেও নীরব ভূমিকা পালন করছে ‘চরমোন্তাজ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র’।
 
চরমোন্তাজ ইউনিয়নের সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী এম আজাদ খান সাথী বলেন, “লকডাউনে সামাজিক দূরত্ব সহ মাস্ক না পরে সবাই যেভাবে বাজারে আসছে এতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে পারে। এখনই প্রশাসনের পক্ষ থেকে জোরালো পদক্ষেপ নিতে হবে তা না হলে পরে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধি ঠেকানো যাবে না।” 

রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাশফাকুর রহমান জানান, লকডাউন সফল করার লক্ষে নদীপথে যাত্রীবাহী সকল নৌযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা মানতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মানতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।