• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, ১১:৪৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, ১১:৫১ পিএম

মসজিদে খুৎবার আজানকে কেন্দ্র করে মতদ্বন্দ্ব ও সংঘর্ষে নিহত ১

মসজিদে খুৎবার আজানকে কেন্দ্র করে মতদ্বন্দ্ব ও সংঘর্ষে নিহত ১
ছবি-সংগৃহীত ।

কুমিল্লায় জুম্মার নামাজের খুৎবার আগে মসজিদে দ্বিতীয় আজান নিয়ে মুসল্লিদের দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আবু হানিফ খান (৪৫) নামে এক মুসল্লি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১০ জন। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১) দুপুরে জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরাবাজার থানার কুড়াখাল গ্রামের বাইতুন নুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় মসজিদে জুম্মার নামাজ পণ্ড হয়ে যায় এবং এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কুড়াখাল বাইতুন নুর জামে মসজিদের ভেতরে ইমামের সামনে দাঁড়িয়ে দীর্ঘ প্রায় দুই যুগ যাবত খুৎবার আগে দ্বিতীয় আজানের প্রথা চালু ছিল। কিন্তু গত শুক্রবার থেকে মসজিদের বারান্দায় খুৎবার আজান চালু করা হয়। এ নিয়ে মসজিদের মুসুল্লিদের দুইটি পক্ষের (সুন্নী গ্রুপ ও রিজভী গ্রুপ) মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

এদিকে শুক্রবার ওই মসজিদের মোয়াজ্জেম আজান দিতে বারান্দায় গেলে এর প্রতিবাদ জানিয়ে মসজিদ কমিটির সভাপতি আবদুল মালেক মাস্টারের সাথে সহ-সভাপতি হাবিব খান তর্কবিতর্কে লিপ্ত হন। এক পর্যায়ে তাদের দুই পক্ষ ছুরি, লাঠি, রড ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে জুম্মার নামাজ পণ্ড হয়ে যায়।

এসময় দুইপক্ষের সংঘর্ষে মসজিদের মেঝে রক্তাক্ত হয়। সংঘর্ষের সময় ছুরিকাঘাতে আহত আবু হানিফ খানকে  আশঙ্কাজনক অবস্থায় মুরাদনগর হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। 

এ ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হন। গুরুতর আহত আবুল খায়ের (৪৮) ও ইমন খানকে (২৪) আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অপর আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, এ ঘটনায় শাহীন ভূঁইয়া নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুনরায় সংঘর্ষের আশঙ্কায় মসজিদ ও আশপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

 

জাগরণ/এসকেএইচ