• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
প্রকাশিত: নভেম্বর ৩০, ২০২১, ০১:০৬ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ২৯, ২০২১, ০৭:০৬ পিএম

বিউটি পার্লারে স্ত্রীর লাশ, পাশে বসা স্বামী

বিউটি পার্লারে স্ত্রীর লাশ, পাশে বসা স্বামী
ফারজানা আক্তার ● ফাইল ফটো

নরসিংদীর রায়পুরায় ফারজানা আক্তার (১৮) নামে এক তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার আমিরগঞ্জ ইউনিয়নের হাসনাবাদ বাজারের 'আখি বিউটি পার্লার ও ট্রেনিং সেন্টার' এর ভেতর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এ সময় পুলিশ ওই তরুণীর স্বামী ও বিউটি পার্লারের মালিক লোকমান মিয়াকে আটক করেন। লাশটি উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নিহত ফারজানা উপজেলার পিপি নগর গ্রামের বিল্লাল মিয়ার মেয়ে। তিনি ডৌকারচর বেলায়েত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন। সাত মাস আগে রাজশাহীর ওমর আলীর ছেলে লোকমান মিয়ার সঙ্গে ওই কিশোরীর বিয়ে হয়। এরপর পর থেকেই হাসনাবাদ এলাকায় লোকমানে মালিকানাধীন আঁখি বিউটি পার্লার ও ট্রেনিং সেন্টারে একটি কক্ষে থাকতেন তারা দুজন।

পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ফারজানার ওপর নিয়ার্তন চালিয়ে আসছিল তার স্বামী লোকমান। সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে বিউটি পার্লারের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফারজানার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান স্থানীয় একজন। পরে তিনি পুলিশকে খবর দেন। ওই সময় ঝুলন্ত লাশের পাশেই বসে ছিলেন লোকমান। পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করেন এবং স্বামীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহতের মা শাহিদা বেগম জানান, বিয়ের পর থেকেই তার মেয়ের ওপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল লোকমান। স্বামীর ভয়ে এ বিষয়ে পরিবাকে কিছুই জানাতো না ফারজানা। ১৫ দিন আগে পেটে লাথি মেরে ফারজানার গর্ভের সন্তানকে তার স্বামী হত্যা করেন বলে দাবি করেন শাহিদা।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল জব্বার বলেন, লাশটি সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পেয়েছি। পরে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ওই তরুণীর স্বামী লোকমানকে আটক করা হয়েছে।

জাগরণ/এসএসকে