• ঢাকা
  • সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৯, ২৭ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ১০, ২০১৯, ০৪:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৩, ২০১৯, ০৯:২৭ পিএম

মুঠোফোনে বন্দিদের কথা বলার সুযোগ করে দেয়ায় ৪ কারারক্ষী বরখাস্ত

জাগরণ প্রতিবেদক
মুঠোফোনে বন্দিদের কথা বলার সুযোগ করে দেয়ায় ৪ কারারক্ষী বরখাস্ত
ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কারাবন্দিদের মোবাইল ফোনে (মুঠোফোন) কথা বলার সুযোগ করে দেয়ার অভিযোগে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ৪ কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্তকৃতরা হলেন- শাহিন মিয়া, আবদুল আজিজ, সাইফুল ইসলাম ও জনিরুল ইসলাম।

বরখাস্তকৃত কারারক্ষীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল, বিএসএমএমইউ এবং পঙ্গু হাসপাতালে আসামিদের সঙ্গে তাদের স্বজনদের মোবাইল ফোনে কথা বলাসহ বিভিন্ন অনিয়ম করেছিলেন বলে কারা সূত্র নিশ্চিত করেছে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুব আলম জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের আসামিদের মোবাইল ফোনে কথা বলার ব্যবস্থা করে দেয়ায় ওই কারারক্ষীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। যদিও ঘটনাটি ৩ দিন আগের। প্রাথমিক তদন্তে তাদের এই অপরাধের তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে। বরখাস্ত হওয়া ৪ কারারক্ষী রাজধানীর তিনটি সরকারি হাসপাতালে দায়িত্বরত ছিলেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) সকালে তাদের বরখাস্তের আদেশ দেয়া হয়। হাসপাতালে দায়িত্বরত অবস্থায় সংশ্লিষ্ট সবার কাছেই মোবাইল ফোন  পাওয়া যায়। তাই তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে।

কারা অধিদফতর ডিআইজি প্রিজন্স ( ঢাকা বিভাগ ) টিপু সুলতান জানান, কারাগারের ভেতরে এবং বাইরে কারা হেফাজতে থাকা কোন বন্দি মোবাইল ফোনে কথা বলার বিধান নেই। জেল কোড অনুযায়ী এ কাজটি সম্পূর্ণ বেআইনি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অধিকাংশ বন্দি অর্থের প্রলোভন দিয়ে কারারক্ষীদের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নেয়ার চেষ্টা করে। প্রাথমিকভাবে প্রমানিত হওয়ায় ৪ কারারক্ষীতে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ধরনের আরও কোন অনৈতিক কাজের তথ্য প্রমাণ পেলে একই রকম শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ডিআইজি প্রিজন্স। 

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার ইকবাল কবির চৌধুরীকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

এইচএম/এসএমএম