• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০১৯, ০৫:১৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২০, ২০১৯, ০৫:১৩ পিএম

১২ বছরের কম বয়সীরা ধর্ষণের শিকার বেশি!

মাহমুদুল আলম
১২ বছরের কম বয়সীরা ধর্ষণের শিকার বেশি!

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের হিসাব অনুযায়ী (আসক) চলতি ২০১৯ সালের প্রথম তিন মাসে ধর্ষণের শিকার হওয়া ১২১ ভুক্তভোগীর মধ্যে ৪০ জনের বয়সই ৭ থেকে ১২ বছরের মধ্যে। জানতে চাইলে আসকের তথ্য সংরক্ষণ ইউনিট দৈনিক জাগরণকে এই তথ্য সরবরাহ করে।

আসকের দেয়া তথ্যানুসারে, গত জানুয়ারী থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত ধর্ষণের শিকার হওয়া ছয় বছরের কম বয়সী শিশুর সংখ্যাই ২২। আর ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ২৯ জন। 

১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের মধ্যে ১৩ জন, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের ৯ জন এবং ত্রিশোর্ধ্ব ৮ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।

এই ১২১টি ঘটনায় মামলা দায়ের হলেও ধর্ষণের আরও ৬৮টি ঘটনা ঘটেছে, যেগুলোতে মামলা হয়নি। তাছাড়া সেগুলোতে ভুক্তভোগীদের বয়সও উল্লেখ করা হয়নি। সব মিলিয়ে এই তিন মাসে মোট ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১৮৯টি।

১২১ ভুক্তভোগীর মধ্যে পরবর্তীতে ১৫ জনকে হত্যা করা হয় এবং তিন জন আত্মহত্যা করে। ১৮৯ জনের মধ্যে একক ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১৩২ জন। গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৫৩ জন। বাকি চারজনের ধর্ষণের ধরন উল্লেখ নাই বলে বলা হয়েছে সরবরাহ করা পরিসংখ্যান চিত্রে।

এতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এই সময়ে ধর্ষণের চেষ্টার পর হত্যা করা হয়েছে একজনকে। আরেকজন ধর্ষণের চেষ্টার কারণে আত্মহত্যা করেছেন।

একক ধর্ষণের শিকার হওয়াদের মধ্যে ছয় বছরের কম বয়সী ভুক্তভোগীর সংখ্যা ২০, সাত থেকে বার বছর বয়সীর সংখ্যা ৩৭, তের থেকে আঠার বছর বয়সীর সংখ্যা ১৫, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সীর সংখ্যা সাত, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সীর সংখ্যা চার ও ত্রিশোর্ধ তিন জন। তাছাড়া বয়স উল্লেখ নেই ৪৬ জনের। মোট এই ১৩২ জনের আট জনকে হত্যা করা হয়েছে এবং তিন জন আত্মহত্যা করেছেন।

গণধর্ষনের শিকার হওয়াদের মধ্যে ছয় বছরের কম বয়সীর সংখ্যা ১। সাত থেকে ১২ বছর বয়সীর সংখ্যা ১, ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সীর সংখ্যা ১৪, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সীর সংখ্যা ছয়, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সীর সংখ্যা পাঁচ এবং ত্রিশোর্ধ্বের সংখ্যা পাঁচ। এছাড়া বয়স উল্লেখ নেই ২১ ভুক্তভোগীর। তাদের মধ্যে ৫ জনকে হত্যা করা হয়।

এমএ/আরআই
 

Islami Bank