• ঢাকা
  • সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ০৬:০৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ০৬:০৯ পিএম

গৃহবধূকে আত্মহত্যার প্ররোচণায় শ্বশুর-শাশুড়ি গ্রেফতার

জাগরণ প্রতিবেদক
গৃহবধূকে আত্মহত্যার প্ররোচণায় শ্বশুর-শাশুড়ি গ্রেফতার

রাজধানীর ধানমণ্ডিতে মিতা নূর নামে এক গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায় তার শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে ধানমন্ডি থানা পুলিশ। আত্মহত্যার ওই ঘটনায় মিতা নূরের স্বামী আদনান তামিম তার বাবা-মা’র বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগ দেন। 

সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকালে তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। আত্মহত্যার ঘটনার পর থেকে তাদের বাড়িতে পুলিশি প্রহরা ছিল। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শ্বশুর এবিএম কাফি ও শাশুড়ি মোসা. সুরাইয়া বেগম।

ধানমণ্ডি জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) আবদুল্লাহ হেল কাফী বলেন, মিতা নূরের পরিবারের পক্ষ থেকে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের তথ্যের ভিত্তিতে তার শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেফতার করা হয়।

ধানমণ্ডি থানার ডিউটি অফিসার এসআই বাবুল তালুকদার বলেন, গ্রেফতার দুজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (১ ডিসেম্বর) রাতে মিতা নূরের মরদেহ বাথরুমের দরজা খুলে উদ্ধার করা হয়। পরিবার সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার রাত ৯ টার দিকে মিতা নূরের সঙ্গে তার শ্বশুর-শাশুড়ির বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে তিনি বাথরুমে যান। দীর্ঘক্ষণ পর বাথরুম থেকে বের না হওয়ায় চাবি দিয়ে খোলা হয় দরজা। সেখানে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে।

ওই ঘটনার পর স্বামী আদনান তামিম সাংবাদিকদের বলেন, আমার মা সবসময় মিতা নূরকে (স্ত্রী) নির্যাতন করত। নানাভাবে অত্যাচার করত। আমি বাসায় থাকতাম না। তবে শুনতাম যে, তারা অত্যাচার করত। আমার স্ত্রীর পরিবার নিম্নবিত্ত ছিল। বিয়ের পর থেকে নানা ইস্যুতে তার সঙ্গে আমার বাবা-মা খারাপ ব্যবহার করত। 

এইচএম/টিএফ

আরও পড়ুন