• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: জুলাই ৬, ২০২১, ০৯:৫৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৬, ২০২১, ০৩:৫৮ পিএম

সহিংসতা করেছিল দুস্কৃতিকারীরা—বাবুনগরীর দাবি

সহিংসতা করেছিল দুস্কৃতিকারীরা—বাবুনগরীর দাবি
হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ● ফাইল ছবি

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, ‘হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে কথিত সহিংসতার যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে তা মিথ্যা। হেফাজত কর্মীরা নয়, সহিংসতা করেছিল দুস্কৃতিকারীরা।’

মঙ্গলবার (৬ জুলাই) খিলগাঁও মাখজানুল উলুম মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হেফাজতের বৈঠকে সংগঠনটির আমির এসব কথা বলেছেন বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, হেফাজতের একজন নেতা-কর্মীও সহিংসতায় যুক্ত ছিলেন না। কিছু দুস্কৃতিকারী হেফাজতের কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চেষ্টা করেছে। তাদের খুঁজে বের করা দরকার। নিরীহ আলেম-উলামাদের সহিংসতার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই।

বাবুনগরী বলেন, ব্যক্তিগত প্রয়োজনে নয়, জাতীয় স্বার্থে স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে বৈঠক করেছি। বৈঠকে গ্রেফতার আলেম উলামাদের মুক্তি, মামলা প্রত্যাহার ও লকডাউনে বন্ধ থাকা কওমি মাদ্রাসা খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছি। দাবি পূরণের মৌখিক আশ্বাস পেয়েছি মন্ত্রীর কাছ থেকে।

হেফাজত আমির বৈঠকে বলেছেন, সারাদেশে অসংখ্য নিরীহ আলেম-উলামাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা কারাগারে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে হেফাজতের পক্ষ থেকে এ বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হেফাজতের দাবিদাওয়া মেনে নেয়ার মৌখিক আশ্বাস দিয়েছে।

হেফাজত আশা করছে সরকার দ্রুত দাবি পূরণ করে আলম উলামাদের মুক্তি দেবে এবং গ্রেফতার ও হয়রানি বন্ধ করবে।

সোমবার (৫ জুলাই) চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় এসেছেন হেফাজত আমির। সংগঠনের মহাসচিব নুরুল ইসলাম জিহাদী নূরুল ইসলাম জিহাদীকে নিয়ে সোমবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসায় যান জুনায়েদ বাবুনগরী। প্রায় দুই পৌনে দুই ঘণ্টার বৈঠক করেন।

জাগরণ/এমএ