• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০১৯, ০৩:৪৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৮, ২০১৯, ০৯:৫২ পিএম

রমজানে কঠোর বাজার নিয়ন্ত্রণ, সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে ডিসিদের চিঠি 

জাগরণ প্রতিবেদক
রমজানে কঠোর বাজার নিয়ন্ত্রণ, সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে ডিসিদের চিঠি 
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি- ছবি: জাগরণ

 

রমজানে বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে সর্বত্র কঠোর মনিটরিং করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। তিনি বলেন, রামজানের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্যদ্রব্য মজুদ আছে। কোথাও সংকট হওয়ার কথা নয়। এরপরও কেউ সংকট সৃষ্টি করতে চাইলে তার বিষয়ে যথাযাথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। যে কোন মূল্যেই হোক বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখা হবে।

মন্ত্রী বলেন, সড়কে পণ্য পরিবহনের সময় চাঁদাবাজি বন্ধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর নির্দেশনা দিয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের চিঠি দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। এর আগে মন্ত্রী দেশের চাল-কল মালিক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। 

এ সময় চাল-কল মালিকরা দেশে চালের প্রচুর উৎপাদন ও মজুদ আছে জানিয়ে বিদেশে চাল রফতানির আহ্বান জানিয়েছেন বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

‘রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কী উদ্যোগ নিচ্ছে’ এ প্রশ্নের জবাবে বানিজ্যমন্ত্রী বলেন, রমজানে যেসব খাদ্য-দ্রব্যের চাহিদা বাড়ে তা হচ্ছে- চাল, মুশুরের ডাল, তেল চিনি ও ছোলা। এসব খাদ্য-দ্রব্য আমাদের কাছে পর্যাপ্ত মজুদ আছে। এসবের মূল্য বৃদ্ধির কোন সম্ভাবনা নেই। 

টিপু মুনশি বলেন, রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সর্বত্র কঠোর মনিটরিং করা হবে। টিসিবির খোলা বাজারে পণ্য বিক্রয় রামজানে আরো জোড়দার করা হবে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে রামজানের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্যদ্রব্য মজুদ আছে। কোথাও সংকট হওয়ার কথা নয়। এরপরও কেউ সংকট সৃষ্টি করতে চাইলে তার বিষয়ে যথাযাথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। যে কোন মূল্যেই হোক বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখা হবে বলেও জানান বাণিজ্য মন্ত্রী।

সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়ে টিপু মুনশি বলেন, ব্যবসায়ীরা আমাদের কাছে আগেই অভিযোগ করেছেন, তাদের পণ্যবাহী পরিবহনে পথে পথে চাঁদা দিতে হয়। বিষয়টি কঠোর হস্তে দমন করা হবে। সড়কে পণ্য পরিবহনের সময় চাঁদাবাজি বন্ধে দ্রুত জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের পদক্ষেপ নিতে সরকারের পক্ষ থেকে চিঠি দেয়া হবে।
 
চাল-কল মালিক ও চাল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক : 

বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের চাল-কল মালিক ও চাল ব্যবসায়ীরা আজ আমার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তারা বলেছেন, আমরা যদি এই মুহুর্তে চাল রফতানি না করি, তবে চালের মূল্য আরো পড়ে যাবে। এতে করে কৃষকরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তাদের আশ্বাস দিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে শিগগিরই খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে দেখবো। যদি বেশি চাল থেকে থাকে, তবে কৃষকদের স্বার্থে রফতানির উদ্যোগ নেয়া হবে।’
 

এমএএম/টিএফ

Space for Advertisement