• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ২১, ২০১৯, ০৬:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২১, ২০১৯, ০৬:১৬ পিএম

উৎপাদনশীলতা বাড়াতে প্রয়োজন সুশাসন : শিল্প সচিব

জাগরণ প্রতিবেদক
উৎপাদনশীলতা বাড়াতে প্রয়োজন সুশাসন :  শিল্প সচিব
শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিম -ছবি

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি জোরদারের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়নে সুশাসন কার্যকর হাতিয়ার হিসেবে ভূমিকা পালন করে। উৎপাদনশীলতা বাড়াতে শিল্প ব্যবস্থাপনায় সুশাসন নিশ্চিত করা জরুরি বলে মন্তব্য করেছেন শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিম।

রোববার (২১ এপ্রিল) রাজধানীর একটি হোটেলে ‘উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি এবং প্রতিযোগিতামূলক সক্ষমতা অর্জনের জন্য শিল্প কারখানায় জবাবদিহিমূলক আচরণ’ শীর্ষক ৫ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব লুৎফুন্নাহার বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশনের পরিচালক এসএম আশরাফুজ্জামান এবং এশিয়ান প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশনের শিল্পবিষয়ক প্রোগ্রাম অফিসার ড.জোসে এলভেনিয়া বক্তব্য দেন।

কর্মশালাটি যৌথভাবে আয়োজন করে জাপানভিত্তিক এশিয়ান প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এপিও) এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও)।

শিল্পসচিব আব্দুল হালিম বলেন, দারিদ্র্য বিমোচনে অব্যাহত সাফল্যের জন্য বাংলাদেশ এরইমধ্যে ‘অসম্ভব অর্জনের দেশ’ হিসেবে বিশ্ব সম্প্রদায়ের স্বীকৃতি অর্জন করেছে। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোকে ছাড়িয়ে গেছে। ২০১০ সালে এ দেশে যেখানে দারিদ্র্যের হার ছিল ১৮.৫ শতাংশ, সেখানে ২০১৬ সালে তা ১২.৯ শতাংশে নেমে এসেছে। বিশ্বব্যাংকের প্রক্ষেপণ অনুযায়ী ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের দারিদ্র্যের হার ৩ শতাংশের নিচে নেমে আসবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ৫ দিনব্যাপী এই কর্মশালায় বাংলাদেশসহ এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ১৩টি দেশের ২০ জন প্রশিক্ষণার্থী এবং ৩ জন উৎপাদনশীলতা ও সুশাসন বিশেষজ্ঞ অংশ নিচ্ছেন। এতে শিল্প ব্যবস্থাপনায় সুশাসনের মাধ্যমে উৎপাদনের প্রতিটি স্তরে দক্ষতা এবং উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। 

এআই/একেএস
 

Space for Advertisement