• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০১:০৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০১:০৭ পিএম

​​​​চামড়া নিয়ে বিপাকে ফরিয়ারা 

হালিম মোহাম্মদ
​​​​চামড়া নিয়ে বিপাকে ফরিয়ারা 
বুলডোজার দিয়ে পরিষ্কার হচ্ছে ফেলে দেয়া চামড়া


কোরবানির পশুর চামড়ার দাম না পেয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে। কোথাও সড়কের পাশে চামড়া ফেলে দেয়ার খবর এসেছে, কোথাও মাটিতে চামড়া পুঁতে ফেলা হচ্ছে। আবার কোথাও চামড়া আবর্জনার মতো করে ছুঁড়ে ফেলে দেয়া হয়েছে। কেউ চামড়া নদীতে ফেলে দিয়েছে। সব মিলিয়ে চামড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন ফরিয়ারা। এ বিপাকে পড়ার পেছনে একাধিক সিন্ডিকেটের ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে আভাস পাওয়া গেছে।  

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় প্রায় ৯’শ কোরবানির পশুর চামড়া পুঁতে ফেলা হয়েছে। উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর হোসাইনিয়া হাফিজিয়া আরাবিয়া দারুল হাদিস মাদরাসার সামনে সংগ্রহ করা এসব চামড়া পুঁতে রাখা হয়।

এ সম্পর্কে ওই মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা সৈয়দ ফখরুল ইসলাম বলেন, এবার মাদ্রাসার পক্ষ থেকে এসব চামড়া সংগ্রহ করা হয়ে ছিলো। কিন্তু চামড়া কিনতে কেউ না আসায় সেগুলো পুঁতে ফেলা হয়।

এদিকে এবার কোরবানির ঈদে পশুর চামড়ার ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় সিলেটের কওমি মাদরাসাগুলোতে ক্ষোভ বিরাজ করছে। অনেকেই চামড়া নদীতে ও রাস্তায় এবং ডাস্টবিনে ফেলে দিয়ে প্রতিবাদ জানান।

সিলেটের মৌসুমী চামড়া ব্যবসায়ীরা জানান, বিক্রি তো দূরের কথা বিনামূল্যেও নেয়ার কেউ নেই। তাই সিলেটের আম্বরখানা এলাকায় রাস্তার ধারে চামড়ার স্তুপ করে রেখেছেন তারা। একইভাবে দেশের বিভিন্নস্থানে দাম না পেয়ে হাজারো চামড়া নষ্ট হওয়ায় সেগুলো সড়কের পাশে ফেলে দিতে বাধ্য হন মৌসুমী ব্যবসায়ীরা। অনেকের চামড়া বিক্রি করতে না পেরে আবর্জনার সঙ্গে ফেলে দিয়ে আসেন ময়লার ডাস্টবিনে।  

চামড়ার মূল্যের একই পরিস্থিতি চট্টগ্রামেও। বুলডোজার দিয়ে শত শত চামড়া অপসারণ করা হয় সড়কের পাশ থেকে। অনেক মৌসুমী ব্যবসায়ী দাম না পেয়ে রাগে-ক্ষোভে এসব চামড়া নষ্ট করে রাস্তার ওপর ফেলে যান।

চামড়া নিয়ে উদ্ভুত পরিস্থিতে এর উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাঁচা চামড়া রফতানির অনুমতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে সরকারের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুল লতিফ বকসী।

বিবৃতিতে বলা হয়, বিভিন্ন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যমতে লক্ষ্য করা যাচ্ছে-নির্ধারিত মূল্যে কোরবানির পশুর চামড়া ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে না। এ বিষয়ে চামড়া শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যবসায়ীদের দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

এদিকে ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকারের কাঁচা চামড়া রফতানির সিদ্ধান্তকে আড়তদাররা স্বাগত জানালেও ট্যানারি মালিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা বলছেন, কাঁচা চামড়া রফতানির সিদ্ধান্ত হবে আত্মঘাতী।

এইচএম/আরআই

আরও পড়ুন

Islami Bank