• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১, ২০১৯, ০৪:৪০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ১, ২০১৯, ০৪:৪০ পিএম

বরিশালে শুরুর দিনই শেষ টিসিবির পেঁয়াজ

বরিশাল সংবাদদাতা
বরিশালে শুরুর দিনই শেষ টিসিবির পেঁয়াজ
বরিশালে লাইন ধরে টিসিবির পেঁয়াজ কিনছেন ক্রেতারা  -  ছবি : জাগরণ

বরিশাল নগরীতে দ্বিতীয় দফায় সরকার নির্ধারিত ৪৫ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি কার্যক্রম শুরু করেছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। রোববার (১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে নগরীর ৫টি পয়েন্টে ট্রাকে করে এই পেঁয়াজ বিক্রি করা হয়।

এর ফলে সকাল থেকেই নগরীর পাঁচটি পয়েন্টেই পেঁয়াজ কিনতে আসা নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষের দীর্ঘ লাইন পড়ে যায়। অনেকটা হুমড়ি খেয়ে পড়ে পেঁয়াজ কেনার জন্য।

পেঁয়াজ কেনা নিয়ে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এবং বিশৃঙ্খলা এড়াতে পাঁচটি পয়েন্টেই পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তাদের সহযোগিতায় সুশৃঙ্খল পরিবেশে পেঁয়াজ কিনে নেন সাধারণ মানুষ।

এদিকে পেঁয়াজ বিক্রি কার্যক্রম নিয়ে অনেকটাই হতাশ ক্রেতারা। তারা বলেন, মাত্র এক কেজি পেঁয়াজের জন্য দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। পেঁয়াজ বিক্রির পরিমাণ বাড়ানো উচিত। তাছাড়া অনেক খাবার হোটেলের একাধিক কর্মচারী এসে পেঁয়াজ কিনতে লাইনে দাঁড়াচ্ছে। এগুলো মনিটর হচ্ছে না।

অন্যদিকে টিসিবির ডিলাররা বলেন, ‘আমরা পাঁচ ডিলার রয়েছি, যারা ট্রাকে করে পেঁয়াজ বিক্রি করছি। এই মুহূর্তে পেঁয়াজের চাহিদা খুবই বেশি। কিন্তু আমাদের যা বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে তা খুবই নগণ্য।’

ডিলাররা বলেন, সকাল থেকে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়। এমনকি বরাদ্দের দুই-তৃতীয়াংশ পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে দুপুর ৩টার মধ্যে। যা আছে তা সোমবার পূর্ণ দিন বিক্রি করা সম্ভব হবে বলে মনে হচ্ছে না। তাই পেঁয়াজের বরাদ্দ বৃদ্ধির জন্য টিসিবিকে চাহিদা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিলাররা।

টিসিবির বরিশাল আঞ্চলিক প্রধান আনিসুর রহমান জানান, মিয়ানমার থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজ থেকে বরিশালের জন্য পাঁচ টন পেঁয়াজ দেয়া হয়েছে। তা পাঁচজন ডিলারকে ভাগ করে দেয়া হয়েছে। পাঁচজন ডিলার নগরীর মধ্যেই সেগুলো বিক্রি করছেন। বরাদ্দ কম থাকায় উপজেলা পর্যায়ে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরো বলেন, রোববার সকাল থেকে নগরীর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর, সিটি করপোরেশনের নগর ভবনের সামনে, আমতলার মোড় পানির ট্যাংকি, চৌমাথা বাজার এবং রূপাতলী চান্দুর মার্কেট এলাকায় ট্রাকে করে প্রতি কেজি ৪৫ টাকা করে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে। সব ডিলারই পেঁয়াজের বরাদ্দ বাড়াতে বলেছেন। বিষয়টি টিসিবির প্রধান কার্যালয়ে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে গত ২০ নভেম্বর বরিশালে প্রতি কেজি ৪৫ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে টিসিবি। প্রথম চালানে আসা ১০ টন পেঁয়াজ পাঁচজন ডিলার দুই দিনেই বিক্রি করে দিয়েছেন। এর ফলে ৮ দিন বন্ধ থাকার পরে ১ ডিসেম্বর থেকে এ কার্যক্রম পুনরায় শুরু হয়েছে।

এনআই

আরও পড়ুন