• ঢাকা
  • শনিবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ৯, ২০২০, ০৮:৩৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ৯, ২০২০, ০৮:৩৭ এএম

পুঁজিবাজার

প্রতিদিন কমছে সূচক লেনদেন

জাগরণ প্রতিবেদক
প্রতিদিন কমছে সূচক লেনদেন

কিছুতেই দরপতন থামানো যাচ্ছে না পুঁজিবাজারে। প্রতিদিন কমছে সূচক লেনদেন। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ব্যাপক  ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। দায়িত্ব নিয়ে কিছুই করতে পারছেন না কর্তৃপক্ষ। কয়েক দিন পর পর কমিটি গঠন ও বৈঠক করছেন তারা।  কিন্তু কোনও উন্নতি নেই। দরপতন হতে হতে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। 

চলতি বছর শুরু হওয়ার পর দরপতন আরও ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। এ বছরের মাত্র ৫ দিনের লেনদেনে সূচক কমেছে ১২৪ পয়েন্ট, বেড়েছে মাত্র ৭ পয়েন্ট।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক ৫৩ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ২২৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। গত ১০ বছরের ব্যবধানে ডিএসইর সূচক এত কম অবস্থানে আর ছিল না।

চলতি সপ্তাহের চার কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে শেয়ারবাজারে। আগের তিন কার্যদিবসের মতো বুধবারও বড় পতন হয়েছে। লেনদেনে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ২২৮ পয়েন্টে। যা ৩ বছর ৮ মাস ৬ দিন অর্থাৎ ৪৪ মাস বা ৮৯২ কার্যদিবসের মধ্যে সর্বনিম্ন।

এর আগে ২০১৬ সালের ২ মে আজকের চেয়ে নিম্নে অবস্থান করছিল ডিএসইর ডিএসইএক্স সূচকটি। সূচকের সঙ্গে কমেছে টাকার পরিমাণের লেনদেন। লেনদেন হয়েছে মাত্র ২৭৯ কোটি ৯৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। আগের দিনের থেকে ৪৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা কম।

ডিএসইতে ৩৫১টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫১টির বা ১৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ২৪৯টির বা ৭১ শতাংশের এবং ৫১টি বা ১৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৮৮৮ পয়েন্টে। সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২১৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৪৭টির, কমেছে ১৪৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির দর।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) সিএসইতে ১৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

এসএমএম

আরও পড়ুন