• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: জুলাই ৩১, ২০২১, ১২:২৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৩১, ২০২১, ০৬:২৫ এএম

ভ্যাটে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক হচ্ছে

ভ্যাটে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক হচ্ছে
প্রতীকী ছবি ।

আগামী বছরের শুরু থেকে ধারাবাহিকভাবে ভ্যাট পরিশোধে ইলেকট্রনিক পেমেন্ট (ই-পেমেন্ট) বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

প্রথম পর্যায়ে এক কোটি টাকার ওপরে ভ্যাট চালানের ক্ষেত্রে ই-পেমেন্টে ভ্যাট বাধ্যতামূলক হচ্ছে। পরে ধীরে ধীরে ভ্যাট প্রদানে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক করা হবে। জাল চালান প্রতিরোধ এবং রাজস্ব ফাঁকি নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি সব ধরনের কর পরিশোধে আধুনিক পদ্ধতি বাস্তবায়নে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক চায় প্রতিষ্ঠানটি। এনবিআরের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এনবিআরের পরিকল্পনা অনুসারে ব্যবসায়ীদের এই প্রক্রিয়ার আওতায় আনতে বাধ্যতামূলক ই-পেমেন্টে ভ্যাটের পরিমাণ ধীরে ধীরে কমিয়ে আনা হবে।

২০২০ সালের জুলাই থেকে এনবিআর পরোক্ষ কর প্রদানে ইলেকট্রনিক পেমেন্ট সিস্টেমের উদ্বোধন করে। আর চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে ২ লাখ টাকার বেশি শুল্ক ও কর পরিশোধের ক্ষেত্রে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এর আগে অ্যাসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমের মাধ্যমে ২০১৭ সালে ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা চালু হলেও এখনো কাঙ্ক্ষিত সুফল মেলেনি। তাই ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক করতে ৪১টি বাণিজ্যিক ব্যাংক ই-পেমেন্ট ব্যবস্থার সঙ্গে সম্পৃক্ততার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

আয়কর শাখায়ও আয়কর প্রদানে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক করার কাজ চলছে। এনবিআর ২০২০ সালের অক্টোবরে অটোমেটেড চালান (এ-চালান) ব্যবস্থাও চালু করে। করদাতাদের ব্যাংকিং চ্যানেল ও মোবাইল আর্থিক পরিষেবার মাধ্যমে অনলাইনে ট্যাক্স এবং ফি প্রদানের সুযোগ চালু রাখে। এছাড়া ব্যক্তি করদাতাদের জন্য এ-চালানকে বাধ্যতামূলক করার বিষয়েও বিবেচনা করছে এনবিআর।

এনবিআর কর্মকর্তারা বলছেন, ঋণ বিতরণের শর্ত হিসেবে ভ্যাট আদায়ের দক্ষতা উন্নত এবং প্রতারণামূলক লেনদেনের ঝুঁকি কমাতে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) ব্যাংকিং চ্যানেল এবং এমএফএস ব্যবহার করে ৫০ হাজার টাকার ওপরে ভ্যাট পরিশোধের সুপারিশ করেছিল। 

তবে এনবিআর সিস্টেমটি চালুর প্রতিক্রিয়া বিবেচনায় নিয়ে প্রাথমিকভাবে ১ কোটি টাকা নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে ব্যবসায়ীদের প্রতিক্রিয়াসহ অন্যান্য বিষয় আমলে নিয়ে টাকার পরিমাণের বিষয়টি নির্ধারণ করা হবে। ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা বাস্তবায়নের ফলে অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আদায় ও স্বচ্ছতা নিশ্চিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

 

জাগরণ/এসকে এইচ