• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১, ১১:০১ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১, ১১:০২ এএম

গ্রামীণ ব্যাংকের বিরুদ্ধে ৪৬ কোটি টাকা ভ্যাট ফাঁকির মামলা

গ্রামীণ ব্যাংকের বিরুদ্ধে ৪৬ কোটি টাকা ভ্যাট ফাঁকির মামলা

গ্রামীণ ব্যাংকের পাঁচ বছরের ব্যবসায়িক কার্যক্রম তদন্ত করে প্রায় ৪৬ কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকি পেয়েছে ভ্যাট নিরীক্ষা, গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। এ জন্য ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে সংস্থাটি। একই সঙ্গে নিবন্ধন না নিয়ে ভ্যাটযোগ্য সেবা দেয়ায় আরেকটি আলাদা মামলা হয়েছে।

ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদফতরের উপপরিচালক নাজমুন নাহার কায়সারের নেতৃত্বে একটি দল প্রতিষ্ঠানটির ২০১১ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ের কার্যক্রম তদন্ত করে।

ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত ভ্যাট নিবন্ধন নেয়নি।

আইন অনুযায়ী, করযোগ্য পণ্যের সরবরাহকারী বা করযোগ্য সেবা প্রদানকারীর জন্য ভ্যাটের নিবন্ধন নেয়া বাধ্যতামূলক।

গ্রামীণ ব্যাংক তদন্ত মেয়াদে বিভিন্ন সেবা থেকে প্রাপ্ত আয়ের বিপরীতে ৩৫ হাজার টাকা ভ্যাট পরিশোধ করেছে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির প্রদেয় ভ্যাটের পরিমাণ ছিল ৩০ কোটি ৩৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকার বেশি। এই অপরিশোধিত ভ্যাটের ওপর ভ্যাট আইন অনুসারে পাঁচ বছরে ২ শতাংশ হারে ১৪ কোটি টাকা সুদ।

উদ্ঘাটিত রাজস্ব আদায়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তদন্ত প্রতিবেদন ও অনিয়মের মামলা-সংশ্নিষ্ট কাগজপত্র ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেটে পাঠানো হয়েছে।

জাগরণ/এসএসকে