• ঢাকা
  • শনিবার, ২৮ মে, ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২২, ২০২১, ১২:২৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২২, ২০২১, ০৮:৫৭ পিএম

থামছেই না চালবাজি

থামছেই না চালবাজি
ফাইল ফটো

স্বস্তি নেই করোনায় নিঃস হয়ে সঞ্চয় ভেঙে খাওয়া মানুষের। বন্যা, খরা, করোনা আর ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির অযুহাতে বছর জুড়েই দফায় দফায় বেড়েছে চালের দাম!

চাল নিয়ে চালবাজি থামছেই না। খোদ আমন মৌসুমেই আবারও দাম বাড়লো কেজিতে ৪ থেকে ৫ টাকা। এবারও চাল ব্যবসায়ীদের অযুহাত, চাল আমদানি বন্ধের সুযোগে সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন মূলত মিলাররাই। তবে আদতে চালের মূল্যবৃদ্ধির পেছনে কে দায়ী তা তদারকিতে মাঠে দেখা যায়নি সরকারের বাজার নিয়ন্ত্রক কোন সংস্থাকেই! 

এবার আমন মৌসুমেই রাজধানীতে মিনিকেটে-নাজিরশাইল ৫০ কেজির বস্তায় প্রকারভেদ দাম বেড়েছে এক’শ থেকে দু’শ টাকা। অর্থাৎ কেজিপ্রতি দাম বেড়েছে ৪ টাকা পর্যন্ত। 

রাজধানীর মোহম্মদপুর কৃষি মার্কেটে, কেজিতে ৪ টাকা  মিনিকেট ৫৯ থেকে ৬৪ টাকা। নাজিরশাইল চালের দামও বেড়েছে কেজিতে ৪ টাকা। বিক্রি হচ্ছে ৬২ থেকে ৭৫ টাকা। কেজিতে ২ থেকে ৩ টাকা বেড়ে পাইকারি এই মার্কেটে বিআর-২৮ বিক্রি হচ্ছে, ৪৪ থেকে ৫২ টাকা কেজি। খুঁচরা বাজারে চালের দামটা আরেকটু বেশি। 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য বলছে এবার ৫৫ লাখ ৭৭ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধান উৎপাদনের লক্ষ্য ধরা হয়েছে ১ কোটি ৪৭ লাখ টন।

সংস্থাটির প্রত্যাশা এবার আমনের উৎপাদন হবে অন্তত দেড়  কোটি টন। যদিও এর প্রভাব পড়ছে না বাজারে। হচ্ছে না মনিটরিংও। 

টিসিবির তথ্য বলছে, খোদ আমন মৌসুমেই এক মাসের ব্যবধানে চিকন চালের দাম ৪ দশমিক ১৩ আর মোটা চালের দাম বেড়েছে ২ দশমিক ১৫ শতাংশ।

জাগরণ/এসএসকে