• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯, ০৭:১৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯, ০৭:১৮ পিএম

উপাচার্য বরাবর ডাকসু ভিপির আবেদন

৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিল ও কোষাধ্যক্ষ অপসারণের দাবি

ঢাবি প্রতিনিধি
৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিল ও কোষাধ্যক্ষ অপসারণের দাবি

নিয়ম বহির্ভূতভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সান্ধ্যকালীন কোর্সে ভর্তি হওয়া ৩৪ জন ছাত্রলীগ নেতার ছাত্রত্ব বাতিলের আবেদন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)- এর সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। একইসঙ্গে পরীক্ষা ছাড়াই ওই সকল নেতাদের ভর্তি হওয়ার সুযোগ দেয়ার অভিযোগে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের অপসারণেরও দাবি জানান তিনি।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের কাছে এই দাবি জানিয়ে আবেদন করেন তিনি।

আবেদনপত্রে ভিপি লেখেন, ‘‘নির্বাচনের পূর্বে ছাত্রত্ব দেখানোর নিমিত্তে নিয়ম লঙ্ঘন করে ১১ ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘোষণার পর ব্যাবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্সুরেন্স বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াই ৩৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে। যা সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্স তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম পরিপন্থি।’’

‘অনিয়মের’ মাধ্যমে ভর্তি হওয়া ডাকসু নেতাদের নাম উল্লেখ করে আবেদনপত্রে উল্লেখ করেন। এতে এই ৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিল করে অভিযুক্তদের ডাকসু ও হল সংসদের পদ শূন্য ঘোষণা করার দাবি জানান তিনি। একইসঙ্গে ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের অপসারণেরও দাবি জানান তিনি। 

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বেরিয়ে আসে, গত ডাকসু নির্বাচনে অংশ নিতে ছাত্রলীগের ৩৪ জন সাবেক ও বর্তমান নেতা ছাত্রত্ব টিকিয়ে রাখতে ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগের মাস্টার্স অব ট্যাক্স ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রামে ভর্তি হন। তফসিল ঘোষণার পর ছাত্রলীগ নেতারা উপাচার্যের সই করা চিরকুট ও অনুষদের ডিনের সহায়তায় নিয়ম বহির্ভূত উপায়ে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তি হন তারা। এই পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগের ৩৪ জন নেতার ভর্তি প্রক্রিয়ায় কোনও ধরনের অনিয়ম হয়নি বলে গত মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সম্মেলন করে দাবি করেন অভিযুক্ত ডিন শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম।

এমআইআর/এসএমএম
 

আরও পড়ুন