• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৫:৩৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৫:৩৬ পিএম

শিক্ষার্থীদের আল্টিমেটাম, কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি

শিক্ষার্থীদের আল্টিমেটাম, কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি

পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে ফেব্রুয়ারির শেষ বা মার্চের প্রথম সপ্তাহে নতুন রুটিন প্রকাশ ও আটক ১৪ শিক্ষার্থীকে মুক্তির দাবিতে আল্টিমেটাম দিয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষার্থীদের আন্দোলন থেকে এ আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। পর দুপুর ২টার দিকে তারা তাদের আন্দোলন স্থগিত করে।

আল্টিমেটামে বলা হয়, তিন দিনের সময় বেধে দিয়ে আগামী রোববারের মধ্যে দাবি পূরণের কথা জানান। দাবি পূরণ না হলে সারা দেশে কঠোর কর্মসূচিরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবিদ হুসাইন বলেন, “আমাদের দাবি মেনে নেওয়া না হলে রোববার সারাদেশে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। এ সময় আন্দোলন চলাকালে যাদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাদের ছেড়ে দেওয়ারও দাবি জানাচ্ছি।“

এর আগে সকালে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে বিক্ষোভ করেন আসেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বিভিন্ন সরকারি কলেজের স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শুরু হওয়া এই বিক্ষোভে পুলিশ বাধা দিলে জাতীয় জাদুঘরের সামনে অবস্থান করেন। এ সময় পুলিশের ধরপাকড়ে ১৪ শিক্ষার্থীকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের ছেড়ে দেয়া হবে।

এর প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা শাহবাগ থানার ফটকের পাশে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। বেলা দুপুর একটার দিকে পুলিশের রমনা জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশীদ ও শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মামুন অর রশীদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ শিক্ষার্থীদের সেখান থেকে সরিয়ে দেন। এ সময় আরও বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে আটক করতে দেখা যায়।