• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৫, ২০২১, ০৮:৩৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৫, ২০২১, ০৯:১৩ পিএম

গুচ্ছ ভর্তির সময় বাড়লো, কমলো গ্রেডিং

গুচ্ছ ভর্তির সময় বাড়লো, কমলো গ্রেডিং

দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ পদ্ধতিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ভর্তির প্রাথমিক আবেদন কার্যক্রম এর সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। সরকার ঘোষিত লকডাউন শেষ হওয়ার পরবর্তী ১০ দিন পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। একইসঙ্গে কমানো হয়েছে আবেদনের নূন্যতম যোগ্যতাও। মানবিক ও বাণিজ্যে ১ করে গ্রেড কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সমন্বিত ভর্তি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক  কামালউদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের উপাচার্যদের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রাথমিক আবেদনের সময় ১৬ এপ্রিল থেকে সরকার ঘোষিত লকডাউন শেষ হওয়ার পরবর্তী ১০ দিন পর্যন্ত চলবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মানবিক শাখায় জিপিএ ৬.০০ এবং বানিজ্য শাখায় জিপিএ ৬.৫০ পয়েন্ট যাদের থাকবে তারাও নতুন করে আবেদন করতে পারবে। তবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে। নতুন করে আবেদনকারীরা আগামী ২১ এপ্রিল থেকে আবেদন করতে পারবেন। তবে বিজ্ঞান শাখার আবেদনের সকল শর্ত অপরিবর্তিত থাকবে। চূড়ান্ত আবেদনের সময়সীমা পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এর আগে ১০ এপ্রিল এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রাথমিক আবেদনের সময় বাড়ানো হবে না।

এ পর্যন্ত কত আবেদন পড়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "আবেদন পড়েছে ৩ লাখ ২৪ হাজার ৮০৪টি। যার মধ্যে 'A' ইউনিটে ১ লাখ ৮৬ হাজার ৫৩৮ জন। 'B' ইউনিটে ৯১ হাজার ৫৩৫ জন ও 'C' ইউনিটে ৪৬ হাজার ৭৩৩ জন আবেদন করেছেন।

গত ১ এপ্রিল থেকে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শুরু হয়। পরীক্ষা শুরু হবে ১৯ জুন থেকে। গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষার বিস্তারিত তথ্যাদি ভর্তি সংশ্লিষ্ট ওয়েব সাইট (www.gstadmission.org এবং www.gstadmission.ac.bd) এ পাওয়া যাবে।