• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: জুলাই ২৯, ২০২১, ০৬:২৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ২৯, ২০২১, ০৬:২৬ পিএম

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ৫০০ দিন আজ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ৫০০ দিন আজ
ফাইল ছবি।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ৫০০তম দিন পূর্ণ হলো আজ (২৯ জুলাই)। নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে দেশের সব ধরণের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কয়েক দফা সময় দিয়েও খোলা সম্ভব হয়নি মূলধারার কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রায় সাড়ে ৪ কোটি শিক্ষার্থী অপেক্ষার প্রহর গুণছেন। দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় একদিকে পড়াশুনার প্রতি যেমন শিক্ষার্থীরা অমনোযোগী, অন্যদিকে ঘর বন্দি অনেক শিক্ষার্থীরা আজ মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। 

চলতি বছরের শুরুতে করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে সশরীরে কিছু বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক পরীক্ষা নিলেও বন্ধ ছিলো ক্লাস। তবে অনলাইন, টেলিভিশনসহ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে চলেছে শ্রেণি কার্যক্রম। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও অনলাইনে ক্লাস-পরীক্ষা পরিচালনা করেছে।

করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষাপঞ্জি নানান রূপ ধারণ করেছে। গত বছরে এসএসসি ছাড়া এইচএসসিসহ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরের সব শ্রেণিতে অটোপাস দেওয়া হয়েছে। এইচএসসি উত্তীর্ণরা এখনও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারেননি। ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা কলেজে ক্লাসওল শুরু করতে পারেননি। এমন নানান দুঃশ্চিন্তার মধ্য দিয়ে সময় পার করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা। অন্যদিকে এই বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা সময় ও নম্বর কমিয়ে গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে বিকল্প পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। আবশ্যিক ও চতুর্থ বিষয়ের পরীক্ষা ছাড়াই সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে নম্বর দিয়ে ফলাফলে যোগ করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী (ইইসি) পরীক্ষাও বাতিল করা হয়েছে। 'বাড়ির কাজের' মাধ্যমে মূল্যায়ন করে পরের শ্রেণিতে প্রমোশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষাও না হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

অন্যদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি দফায় দফায় বাড়ানোর পর সর্বশেষ আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত করা হয়েছে। তবে ছুটির মেয়াদ আরও বাড়বে বলেই ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জাগরণ/এমএইচ

আরও পড়ুন