• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০, ০৪:৫১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০, ০৪:৫৭ পিএম

ফল দিতে বিলম্ব, উত্তরের রির্টানিং অফিসারের দুঃখ প্রকাশ

জাগরণ প্রতিবেদক
ফল দিতে বিলম্ব, উত্তরের রির্টানিং অফিসারের দুঃখ প্রকাশ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নির্ধারিত ৮ ঘণ্টা ভোটগ্রহণ করা হলেও ফল প্রকাশে ১০ ঘণ্টারও বেশি সময় লাগায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন উত্তরের রির্টানিং অফিসার।

রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (ইটিআই) ভবনে উত্তর সিটির আনুষ্ঠানিক ফল প্রকাশের পর তিনি এই দুঃখ প্রকাশ করেন।

ঢাকা উত্তরের রির্টানিং অফিসার আবুল কাসেম বলেন, আমাদের ভোটগ্রহণ হয়েছে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সর্বোচ্চ সাড়ে ৫টা বা ৬টার মধ্যে ইভিএমের ফলাফল কেন্দ্রে হয়ে গেছে। আমাদের এলাকা অনেক বড়, সেই সাতারকুল, বেরাইদ পর্যন্ত। ওইখানে আমাদের যে নেট ছিল, তা ছিল ধীর গতির। এ কারণে আমাদের দেরি হয়েছে। ট্যাবের মাধ্যমে আমরা যে ফলাফল নিয়েছি, ওইখানে নেটওয়ার্কে বা আমাদের কিছু যান্ত্রিক বা টেকনিক্যাল ত্রুটির কারণে আমাদের ফলাফল দিতে বিলম্ব হয়েছে। এজন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

তিনি বলেন, ইভিএমে ভোটগ্রহণে দেরি হয়নি। ইভিএমের যে কাজটা, ইভিএমের ফলাফল দ্রুত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রথমে উত্তর সিটির ফল প্রকাশের কথা থাকলেও পরবর্তীতে তা শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে করা হয়।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে যেকোনো কারণে নেটওয়ার্ক ধীর গতি থাকায় ফল প্রকাশ দেরি হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

আবুল কাসেম বলেন, ইভিএমের ফলাফল ভোট শেষে আধা ঘণ্টার মধ্যেই হয়ে গেছে। কিন্তু পথে আসতে দেরি হয়েছে। পরবর্তীতে আমাদের কিছু যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দেরি হয়েছে। এগুলোর জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

তিনি বলেন, যারা নির্বাচিত হয়েছেন, ফলাফলের যে একীভূত বিবরণী, সেটা আপনাদেরকে জানিয়ে দিচ্ছি। আজকে বিকেলের মধ্যেই আমি ফলাফল নির্বাচন কমিশনে পাঠিয়ে দেব। আমার মনে হয়, গেজেট আকারে প্রকাশ করতে বেশি সময় লাগবে না। তবে এ সপ্তাহেই প্রকাশ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উত্তর সিটিতে ২৫ দশমিক ৩০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলেও জানান তিনি।

এইচএস/একেএস