• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭
প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২০, ১০:৪৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১১, ২০২০, ১০:৪৪ পিএম

এলপি গ্যাসের দাম নির্ধারণে গুজব না ছড়ানোর আহ্বান

জাগরণ ডেস্ক
এলপি গ্যাসের দাম নির্ধারণে গুজব না ছড়ানোর আহ্বান

তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস-এলিপিজি বিক্রিতে এখনো কোনও দাম নির্ধারণ করেনি সরকার। কেবল বাংলাদেশ পেট্টোলিয়াম করপোরেশন- বিপিসি নিজেদের কোম্পানি এলপি গ্যাস লিমিটেডের জন্য দাম বেঁধে দিয়েছে। তবে তা বেসরকারি কোম্পানির জন্য প্রযোজ্য নয় বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির প্রধান।

এলপিজির দাম নির্ধারণের বিষয়ে গুজব না ছড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

দেশে এই মুহূর্তে এলপিজির বাজার বছরে ১০ লাখ টন। যার ৯৮ ভাগই বেসরকারি কোম্পানির দখলে। বিদেশ থেকে আমদানি ও বোতলজাত করে দেশের বাজারে সরবরাহ করে বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

বছরে মাত্র ২০ হাজার টন এলপিজি সরবরাহ করে বাংলাদেশ পেট্রলিয়াম করপোরেশন- বিপিসি। আমদানি করে বাজারজাত না করলেও, নানা সময়ে বিশ্ববাজারে তরল জ্বালানির দর ওঠানামার সাথে সমন্বয় রেখে নিজেদের সিলিন্ডার গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে তারা।

এবারও বিশ্ববাজারে দরপতনের কারণে, বেসরকারি কোম্পানির সাথে প্রতিযোগিতায় টিকতে সরকারি এলপি গ্যাসের সাড়ে ১২ কেজি সিলিন্ডার গ্যাসের দাম ৭০০ টাকা থেকে কমিয়ে ৬০০ টাকা করে বিপিসি। এর পর নানা অপপ্রচার শুরু হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এ নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরসহ খোদ বিপিসি।

সরকারিভাবে বেসরকারি কোম্পানির এলপি গ্যাসের দাম বেঁধে দেয়ার সুযোগ নেই বলে জানান বিপিসির চেয়ারম্যান।

এখন পর্যন্ত দেশে ৫৭ টি প্রতিষ্ঠান বেসরকারিভাবে এলপি গ্যাস বিক্রির অনুমোদন পেয়েছে। যাদের ১৭টি প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণে বেশিরভাগ ব্যবসা।

কেএপি