• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ১২:৫৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ১২:৫৭ পিএম

নিজেকে ‘জীবন্ত নুসরাত’ দাবি করলেন মিলা

বিনোদন প্রতিবেদক
নিজেকে ‘জীবন্ত নুসরাত’ দাবি করলেন মিলা

শ্বশুরবাড়িতে নির্যাতনে শিকার সঙ্গীতশিল্পী মিলা ইসলাম স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ির বিচার চান। তিনি নিজেকে নুসরাতের সাথে তুলনা করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তাকে বিবস্ত্র করে শ্বশুরবাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয় বলে উল্লেখ করেন।

২০১৭ সালের ১২ মে হঠাৎ করেই পারিবারিকভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন সঙ্গীতশিল্পী মিলা ইসলাম ও বৈমানিক পারভেজ সানজারি। এর আগে তারা ১০ বছর যাবত প্রেম-পরিণয়ে কাটান। বিয়ের পাঁচ মাসের মাথায় তাদের দাম্পত্য জীবনে অশান্তি নেমে আসে এবং তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। মারধর ও যৌতুকের অভিযোগে মিলা মামলা করেন স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে। 
হঠাৎ বিয়ে, দ্রুত সময়ে বিচ্ছেদ ও মামলাকে কেন্দ্র করেই মিলা ক্রমশ নিজেকে গুটিয়ে নেন সঙ্গীত মাধ্যম থেকে।

মিলা তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘কত কত জীবিত নুসরাত আইনের সাহায্যপ্রার্থী দিনের পর দিন। কিন্তু না মেরে ফেলা পর্যন্ত তাদের জন্য কোনও আওয়াজ উঠে না। দুই বছর হয়ে গেলেও আসামীরা জঘন্য ভাবে চিৎকার দিয়ে অপবাদ দেয়া হয় আমাকে। বিচার তো দূরে থাক। দাখিল করা ‘খ’ ধারার চার্জশিট আমাকে না বুঝতে দিয়ে উল্টো ‘গ’ ধারায় মামলা চার্জ গঠন করা হয়।’

তিনি তার শ্বশুরবাড়িতে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলোর বর্ণনা করেন তার স্ট্যাটাসে। তাতে তিনি দায়ি করেন তার স্বামীসহ শ্বশরবাড়ির লোকজনদের। উল্লেখ করে বলেন, তাদের বর্বর নির্যাতনে শিকার হয়ে তিনিও নুসরাতের মতো মৃত্যুবরণ করতে পারতেন। আর মৃত্যুবরণ করলেই হয়তো তার নির্যাতনের বিচার হতো, আন্দোলন হতো দেশব্যাপী। কিন্তু তিনি যে একজন জীবন্ত নুসরাত তা কেউ আমলেই নিচ্ছে না।

এসজে/

Islami Bank
ASUS GLOBAL BRAND