• ঢাকা
  • রবিবার, ০৭ মার্চ, ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৫:২৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৫:৩৫ পিএম

শাকিবের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন অনন্য মামুন

শাকিবের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন অনন্য মামুন

ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের ওপর ক্ষোভ উগরে দিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক অনন্য মামুন। রোববার অনলাইনে প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় তার সম্পর্কে নানা রকম অভিযোগ তুলে ধরেন। ২৭ মিনিট ১৪ সেকেন্ডের ভিডিওতে তিনি নবাব এলএলবি সিনেমার বিভিন্ন সমস্যা, অভিনয়শিল্পীদের আচরণ এবং পরিচালক সমিতির নিয়ে কথা বলেন। 

গেল বিজয় দিবসে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পায় শাকিব খান অভিনীত ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমাটি। মামুন জানালেন, অনলাইনে মুক্তির কথা শুনে শাকিব বেশি টাকা দাবি করেন। তার দাবি রেখেই তাকে বেশি টাকায় ছবিতে চুক্তিবদ্ধ করা হয়। এ ছাড়া কথা ছিল, তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবির প্রচারণা চালাবেন। সেটা তিনি করেননি। 

মামুন বলেন, “নবাব এলএলবি সিনেমায় শাকিব খান তার অন্যান্য সিনেমার চেয়ে বেশি টাকা নিয়েছেন। সিনেমাটি ওয়েব প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে জেনে বেশি টাকা পারিশ্রমিক দাবি করেন তিনি। কথা ছিল নিজের ফেসবুক পেজ থেকে সিনেমার প্রচার করবেন শাকিব খান। কিন্তু তার কিছুই করেননি তিনি।”

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ‘আই থিয়েটার’ উদ্বোধনে অতিথি হিসেবে থেকে প্রচারের জন্য টাকা নিয়েও আসেননি ঢাকাই ছবির এই জনপ্রিয় নায়ক। মামুন আরো বলেন, “২৬ নভেম্বর বড় অনুষ্ঠান করে আই থিয়েটার চালুর ঘোষণা দেওয়া হলো। একই সঙ্গে জানানো হলো ১৬ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে সিনেমাটি। সেই অনুষ্ঠানে শাকিব খান আসেননি। কিন্তু তার সঙ্গে কথা বলেই তারিখটি চূড়ান্ত করা হয়েছিল। সেই অনুযায়ী আমরা সবাইকে দাওয়াত করেছিলাম। প্রচারের জন্য টাকা নিয়েও তিনি আসেননি।”

‘নবাব এলএলবি’ সিনেমায় একটি দৃশ্যে পুলিশকে হেয় করায় পর্নোগ্রাফি মামলায় জেল খাটেন মামুন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিপদে পড়লে কেউ সঙ্গে থাকে না। যে সংলাপ ও দৃশ্য নিয়ে ঝামেলা, সেই দৃশ্যের অভিনেত্রী স্পর্শিয়া সংবাদমাধ্যমে বলেছেন যে, তিনি আগেই আমাকে সাবধান করেছিলেন। কিন্তু আমি নাকি শুনিনি। এটা সবচেয়ে বড় মিথ্যা কথা। স্পর্শিয়া তো আমাকে এ কথা বলেইনি; বরং ভালো করার জন্য সেই দৃশ্যে তিনি চারবার টেক দিয়েছেন।”

সবশেষে অনন্য মামুন কথা বলেন পরিচালক সমিতি নিয়ে। তিনি জানান, পরিচালক সমিতি থেকে এখন পর্যন্ত তিনবার নিষিদ্ধ হয়েছেন তিনি। কিন্তু পরিচালক সমিতির যে ভূমিকা রাখার কথা ছিল, তা তারা রাখতে পারেনি।