• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২১, ০৬:২৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১, ২০২১, ০৬:৩৬ পিএম

সিনেমা হল সংস্কার ও নির্মাণ

এক হাজার নয়, ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন

এক হাজার নয়, ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন

দেশে সিনেমা হলের সংখ্যা কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। ক্রমাগত লোকসানের মুখে অনেক সিনেমা হল ভেঙে বহুতল শপিং কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হচ্ছে। সরকার চাইছে বন্ধ হওয়া সিনেমা হলগুলো আবার চালু হোক। সেই সঙ্গে নির্মিত হোক নতুন কিছু সিনেমা হল। সেজন্য হল সংস্কার ও নির্মাণের জন্য ৫০০ কোটি টাকা ঋণ সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মনে করেন, আগামী এক বছরের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়া অনেক সিনেমা হল পুনরায় চালু হবে। এছাড়া বেশকিছু নতুন সিনেমা হল নির্মিত হবে। সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে সিনেমা হল নির্মাণ-সংস্কারে ব্যাংক ঋণ চালুর পরিপ্রেক্ষিতে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশ ব্যাংক আপাতত ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন করেছে যা প্রয়োজনে ১ হাজার কোটি টাকা বা তারও বেশি করা যাবে এবং সাধারণভাবে ৮ বছরে পরিশোধযোগ্য এই ঋণ গ্রহণের ১ বছর পর থেকে শোধ করা শুরু হবে। এ তহবিল আসলে প্রণোদনা প্যাকেজ। তফসিলি ব্যাংকের মাধ্যমে এটি বিতরণ হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক ১.৫ শতাংশ সুদে অর্থটা তফসিলভুক্ত ব্যাংকগুলোকে দেবে। ব্যাংকগুলো জেলা-উপজেলায় সেটি ৪.৫ শতাংশ আর ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে ৫ শতাংশ সুদে ভোক্তাদের কাছে এই ঋণ বিতরণ করবে।”

এসময় মন্ত্রী অনুদানের সিনেমা নিয়েও কথা বলেন। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, “আমরা কিছু ভালো ছবির জন্য অনুদান দিই। আগে অনুদানের টাকা দিয়ে আর্ট ফিল্ম হতো। এখন বাণিজ্যিক সিনেমাও হচ্ছে। এর সঙ্গে কিছু শর্তও দেয়া হয়েছে, যেমন অনুদানের সিনেমা কমপক্ষে ১০টি হলে মুক্তি দিতে হবে।”