• ঢাকা
  • বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮
প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২১, ০১:৫৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১৫, ২০২১, ১২:৩৪ পিএম

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা

সাধারণ মানুষ পারলে পরীও ক্লাবে যেতে পারেন: মিশা

সাধারণ মানুষ পারলে পরীও ক্লাবে যেতে পারেন: মিশা

চিত্রনায়িকা পরিমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর। এ ঘটনায় অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন তিনি।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ের সামনে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি। 

মিশা বলেন, “পরীমণির এই ঘটনার চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হোক। যেটা সত্য সেটা বেরিয়ে আসুক। প্রকৃত অপরাধীর শাস্তি হোক। শুধু পরীমণি নন, পৃথিবীর কোনো নারী যেন এভাবে নির্যাতের শিকার না হন। শিল্পী সমিতির নেতা হিসেবে নয়, একজন মানুষ হিসেবে আমি এটাই চাই। আমি পরীমণির পাশে আছি বলেই শুটিং থেকে সোজা এখানে (ডিবি কার্যালয়ে) চলে এসেছি।”

চলিচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কাছে সাহায্য চাওয়ার পরও কেন তাকে সাহায্য করা হয়নি—সাংবাদিকের করা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “পরীমণি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কাছে কোনো অভিযোগ করেননি। তিনি শুধু পুলিশের আইজিপি মহোদয়ের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। তখন তিনি ঢাকার বাইরে থাকায় সেটা সম্ভব হয়নি।”

প্রশ্ন উঠেছে, রাত ১২টার সময় পরীমণি কেন বোট ক্লাবে গিয়েছিলেন? এই প্রশ্নের উত্তরে মিশা বলেন, “সুধীজনরা যদি রাতে ক্লাবে যেতে পারেন, তাহলে একজন চিত্রনায়িকা কেন সেখানে যেতে পারবেন না? তাহলে ক্লাব কালচার উঠিয়ে দেওয়া হোক।”

তিনি আরও বলেন, “যতটুকু শুনেছি, পরীমণি ক্লাবে সিনেমা বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়েছিলেন। এক্ষেত্রে আমি বলব, একজন জনপ্রিয় নায়িকা হিসেবে তার বাসায় বসে সিনেমার গল্প শোনা বা অন্য বিষয়গুলো সেরে ফেলা উচিত ছিল। তাহলে এমন ঘটনা ঘটত না।”

মিশা জানান, ওই ঘটনার পর শিল্পী সমিতির সভাপতি হিসেবে পরীমণির সঙ্গে দেখা করেননি। মানসিকভাবে অসুস্থ থাকায় পরীর সঙ্গে দেখা করা সম্ভব হয়নি। 

গত ৯ জুন উত্তরা বোট ক্লাবের পরিচালক নাসির ইউ মাহমুদ ও ব্যবসায়ী অমি পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যা করার চেষ্টা করে। ১৩ জুন পরীমণি প্রথমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিচার চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি লেখেন। পরে সেদিন রাত ১০টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করেন। ১৪ জুন তিনি সাভার থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অমি, নাসিরসহ তিন নারীকে গ্রেপ্তার করে