• ঢাকা
  • শনিবার, ২৮ মে, ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৭, ২০২২, ০১:২২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৬, ২০২২, ০৭:২২ পিএম

পরী আছে পরী নেই

পরী আছে পরী নেই
সংগৃহীত ছবি

চিত্রনায়িকা পরীমণি শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরের দিকেই জানান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নিতে চান না।

সেদিন নায়িকা জানান, ‘সবাই জানেন আমি মা হচ্ছি। আমার শারীরিক অবস্থা ভালো না। গতকাল রাত পর্যন্ত আমি শুটিং করেছি। চিকিৎসক আমাকে পুরোপুরি বিশ্রামের পরামর্শ দিয়েছেন। অনাগত সন্তানের কথা ভেবে আমি কোনো ঝুঁকি নিতে চাচ্ছি না। তাই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ 

রোববার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে মনোনয়নপ্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। সেখানে ৪৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন, তাদের প্রত্যেককেই নির্বাচনে অংশ নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, নির্বাচন কমিশনের কাছে মনোয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় ছিল গতকাল শনিবার দুপুর অব্দি। তখন পর্যন্ত পরীর পক্ষ থেকে কোনও আবেদন কমিশনে যায় নি। ফলে নিয়ম অনুযায়ী তার প্রার্থীতা বাতিল হয় নি। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক একটি পূর্ণাঙ্গ ব্যানারও টানানো হয়েছে বিএফডিসিতে। সেখানে কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলে শোভা পাচ্ছে পরীর নাম ও ছবি।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার পীরজাদা শহীদুল হারুণ বলেন, ‘আমরা নমিনেশন পেপার প্রত্যাহার করার সুযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু কোনও প্রার্থী আবেদন করেননি। তাইতো প্রত্যেকেই মনোনয়ন পেয়েছেন। তাই কেউ যদি অংশ নিতে না চান, সেটা নির্বাচনের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্যতা পাবে না। কেননা ব্যালট পেপারে তার নামও থাকবে।

শেষ মুহূর্তে পরীর এভাবে সরে পড়ার ঘোষণা তার প্যানেলের ওপর কতটা প্রভাব ফেলে তা সময়ই বলে দেবে। তবে পরীর সরে দাঁড়ানোর পর ব্যালট পেপারে তিনি কত ভোট পান সেটি দেখার অপেক্ষায় ভক্তরা। 

জাগরণ/এসএসকে

আগামী ২৮ জুয়ানুয়ারি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল।  নির্বাচনে মিশা-জায়েদ  এবং ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।