• ঢাকা
  • রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
প্রকাশিত: অক্টোবর ৪, ২০২২, ১২:০১ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ৩, ২০২২, ০৬:০১ পিএম

সুজিতের রচনায় দুর্গাপূজার নাটক "বিজয়ার উপহার"

সুজিতের রচনায় দুর্গাপূজার নাটক
ছবি- আবু হুরাইয়া তানভীর, নিশাত প্রিয়ম ও রচয়িতা সুজিত কুমার বিশ্বাস।

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে নির্মিত হয়েছে বিশেষ নাটক "বিজয়ার উপহার"। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন আবু হুরাইয়া তানভীর ও নিশাত প্রিয়ম।

দেশব্যাপী শুরু হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা। আজ নবমী। ৫ অক্টোবর মা দুর্গার বিসর্জনের মধ্যদিয়ে শেষ হবে এবারের দুর্গোৎসব। 

এই উপলক্ষ্যে সুজিত কুমার বিশ্বাসের রচনা ও মিলন ভট্টাচার্যের পরিচালনায় এবারের বিশেষ নাটকটি "বিজয়ার উপহার" মূলত রোম্যান্টিক ধাঁচের। নাটকটি আজ মঙ্গলবার রাত ১০টায় দেখা যাবে মাছরাঙা টেলিভিশনে।

আবু হুরাইয়া তানভীর ও নিশাত প্রিয়ম

নাটকের গল্প প্রসঙ্গে সুজিত কুমার বিশ্বাস জানান, বরিশালের নামকরা মিষ্টি “রস কদমের” এর মালিক নিপেন ঘোষ। বউয়ের চাপে এইবার পূজাটা শ্বশুরবাড়ি ঢাকাতেই করতে হবে। পুরান ঢাকায় নিপেনের শ্বশুরবাড়ি। বরিশালের বড় বড় ইলিশ, মিষ্টিসহ অনেক কিছু নিয়ে সদর ঘাট লঞ্চ থেকে নামে। সাথে আছে নিপেনের মাশির ছেলে শরৎ। 

গল্পের এক পর্যায়ে বিজয়া শরৎকে ধুতি পাঞ্জাবী উপহার দেয়। বিজয়া বলে “কাল বিজয়া, এই ধুতি পাঞ্জাবী পরে মায়ের কাছে যা চাইবেন, দেখবেন ঠিক পেয়ে যাবেন”। শরৎ সুন্দর করে বিজয়ার দেয়া উপহার ধুতি পাঞ্জাবী পরেছে। বিজয়াকে দেখানোর জন্য সারা বাড়ি খুঁজে ছাদে এসে পায়। ধুতি পাঞ্জাবী পড়া শরৎকে বিজয়া মুগ্ধ হয়ে দেখে। শরৎ এইবার তার পেছনে ফুল দিতে গেলে সেখানে ছন্দা ছুটে এসে বলে  “অমলরা এসেছে তাড়াতাড়ি নিচে যা”। বিজয়া সঙ্গে সঙ্গে নিচেই নেমে যায়। ছন্দা শরৎকে জানায়, “অমল বিজয়ার হবু বর। ওদের বিয়ে ঠিক হয়ে আছে। এই পূজার পরেই ওদের বিয়ে। পূজা উপলক্ষে বিজয়ার শ্বশুরবাড়ি থেকে উপহার নিয়ে এসেছে”। 

বিজয়া একজন মাতালের সাথে যাবে না বলে ঘোষণা দেয়। অমল জোর করে বাজে ভাবে বিজয়াকে নিয়ে যেতে চায়। বিজয়া কোন উপায় না পেয়ে অমলের গালে কষে চড় মেরে দেয়। মাতাল অমল ক্ষিপ্ত হয়ে বিজয়ার উপর ঝাপিয়ে পড়লে শরৎ এসে ধাক্কা দিয়ে বিজয়াকে রক্ষা করে। মুহূর্তেই বাড়ির বাকিরা সেখানে এসে উপস্থিত হয়। বিজয়া অমলকে বিয়ে করবে না বলে ঘোষণা দেয়। সবার সামনে বিজয়া শরৎকে বিয়ে করবে বলে জানায়। এভাবেই গল্পটি দর্শককে চূড়ান্ত আকর্ষণের দিকে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে বিজয়া শরৎকে নিয়ে ছাদে যায় এবং বলে, এইবার মিললো তো? 

তিনি বলেন- কী মিলল বা কী মিলবে সেটা দর্শকের ওপরেই ছেড়ে দিতে চাই। শুধু এই কথা বলতে পারি- নাটকটি দর্শকের ভালো লাগবে। আর দর্শকের ভালো লাগলেই আমাদের পরিশ্রম সার্থক হবে। 

নাটকটিতে আবু হুরাইয়া তানভীর ও নিশাত প্রিয়ম ছাড়াও অভিনয় করেছেন মিলন ভট্টাচার্য, ফাতিমা হিরা, পামির হোসেনসহ অনেকে।

 

 

এসএমকে//