• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯, ০৩:৩৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯, ০৩:৩৩ পিএম

আরও ২ দিন থাকবে শৈত্যপ্রবাহ

জাগরণ প্রতিবেদক
আরও ২ দিন থাকবে শৈত্যপ্রবাহ

রাজধানীসহ সারাদেশে বেড়েছে শীতের প্রভাব। ঠাণ্ডা বাতাসের সাথে কুয়াশায় কনকনে শীতে কাঁপছে নগরবাসী।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) আবহাওয়া অফিস জানায়, আগামী ২১ ডিসেম্বর (শনিবার) পর্যন্ত এই শীতের প্রকোপ অব্যাহত থাকবে।

দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকলেও রাতে তাপমাত্রা হ্রাস পাবে।

২১ তারিখের পর কয়েকদিন তাপমাত্রা কিছুটা বাড়বে। চলতি মাসের শেষের দিকে এক থেকে দুইটি শৈত প্রবাহ দেশের উত্তরাঞ্চল দিয়ে বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানায় আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানায়, ২৪ ও ২৫ ডিসেম্বরে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনাও রয়েছে।

বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রামে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। ভোর ৬টায় ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এর আগে বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) জেলার ফুলবাড়ীতে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রের্কড করা হয়েছিল।

পৌষের শুরুতেই ক্রমাগত বাড়ছে তীব্র শীতের প্রকট। ঘন কুয়াশা আর ঠাণ্ডায় চরম বিপাকে পড়েছেন শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষ। কুয়াশার কারণে বিঘ্নিত হচ্ছে যান চলাচল। ফলে দিনের বেলা সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যান চলাচল করতে দেখা গেছে।

কনকনে ঠাণ্ডায় বিশেষ কাজ ছাড়া বাইরে বের হতে সাহস পাচ্ছে না অনেকেই।

চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, তীব্র শীতের কারণে এলাকাবাসী খড়কুটো জ্বালিয়ে ঠাণ্ডা নিবারণের চেষ্টা করছেন। সেই সঙ্গে গরম কাপড়ের দোকানগুলোতে পোশাক ক্রয় করতে ভির করছেন ক্রেতারা।

ঠাণ্ডায় সর্দি, কাশি, জ্বর, ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন রোগে সব চেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন বয়স্ক ও শিশুরা।

এসএমএম

আরও পড়ুন