• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: মার্চ ৩, ২০১৯, ০১:১১ পিএম

প্রবাসীদের ভোটার করতে সিঙ্গাপুরে ইসি সচিব

জাগরণ প্রতিবেদক
প্রবাসীদের ভোটার করতে সিঙ্গাপুরে ইসি সচিব

 

প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার করার কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করতে ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে সিঙ্গাপুর গেলেন ইসি সচিবে হেলালুদ্দীন আহমদ। রোববার (৩ মার্চ) সকালে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকা ছাড়েন তিনি।

জানা গেছে, প্রবাসীদের দীর্ঘ দিনের দাবি পূরণে গেল বছর থেকে উদ্যোগী ভূমিকা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এরই অংশ হিসেবে প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে সাংবিধানিক এ প্রতিষ্ঠানটি। বেশ আগেই সিঙ্গাপুর থেকে প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রম শুরু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে তারা। এর অংশ হিসেবে রোববার ইসি সচিবের নেতৃত্বে একটি কারিগরি টিম সিঙ্গাপুর সফরে গেলেন। এরপর এপ্রিল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে (পাইলটিং) প্রবাসীদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র ‘স্মার্ট কার্ড’ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, প্রতিনিধি দলটি সিঙ্গাপুরে গভার্নমেন্ট টু গভার্নমেন্ট আলোচনা করবে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সেখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্টেকহোল্ডার সবার সঙ্গে কথা বলবে। এরপর প্রবাসী বাংলাদেশিদের রেজিস্ট্রেশন কীভাবে করা যায়, কোথায় নিবন্ধন সেন্টার হবে, কেমন জনবল প্রয়োজন হবে, পদ্ধতিগত কোন ধরনের জটিলতা আসতে পারে- এ ধরনের কিছু বিষয় বিবেচনায় নিয়ে তারা একটি প্রতিবেদন দেবে। এ প্রতিবেদনের ভিত্তিতে কর্মকৌশল নির্ধারণ করে আগামী এপ্রিল থেকেই ইসি সিঙ্গাপুর থেকে প্রবাসীদের ভোটার করা ও তাদের স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম করার পরিকল্পনা করছে।

সিঙ্গাপুরের পাইলট প্রকল্প সফল হলে পর্যায়ক্রমে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, বাহরাইন, সৌদি আরবসহ অন্যান্য দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদেরও জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার কর্মপরিকল্পনা নেয়া হবে। প্রথম ধাপে সিঙ্গাপুর ও পরে দুবাইয়ে এ কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর পরবর্তী ধাপে অন্যান্য দেশে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার করা ও স্মার্টকার্ড দেয়ার কার্যক্রম হাতে নেয়া হবে।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, প্রবাসীদের ভোটার করার উদ্যোগ ইসির বেশ আগে থেকেই ছিল। যেহেতু সংসদ নির্বাচন ছিল তাই আমরা কার্যক্রমটি স্থগিত রেখেছিলাম। নির্বাচন শেষ হওয়ায প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রমটি এগিয়ে নেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।
 
ইসি সচিব বলেন, সিঙ্গাপুর যেহেতু আমাদের কাছের দেশ, সেখানে আমাদের প্রায় লক্ষাধিক প্রবাসী রয়েছেন। এজন্য ‘পাইলট প্রজেক্ট’ হিসেবে সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের ভোটার করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে ইসির একটি টিম ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সিঙ্গাপুরে যাবে। সেখানে প্রতিনিধি দলটি বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে কথা বলবেন। বাংলাদেশি অ্যাম্বাসি, ফরেন মিনিস্ট্রি, লেবার উইং, ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট এবং বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় ও সেমিনার করবেন। সংশ্লিষ্ট সবার মতামতের উপর ভিত্তি করে কারিগরি টিম প্রতিবেদন দেবে। এর ভিত্তিতে আশা করছি এপ্রিল থেকেই আমরা সিঙ্গাপুরের কার্যক্রম শুরু করতে পারব। এটি সফলভাবে সম্পন্ন হলে দ্বিতীয় দফায় দুবাইয়ে কার্যক্রম শুরু হবে।ৎ

শনিবার (২ মার্চ) ইসি সচিব আরও জানান, প্রবাসীরা ৭, ৮, ১০ দিনের জন্য দেশে আসেন। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান, এর মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্র করতে গিয়ে হন্যে হয়ে এর কাছে ওর কাছে গিয়ে ঘোরেন। কিন্তু জাতীয় পরিচয়পত্র করতে পারেন না। এরপর আবার বিদেশে ফিরে যান।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্রের অভাবে তারা জমি কিনতে পারেন না, ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট করতে পারেন না, একটা সিম কার্ড তুলতে পারেন না, চাকরি নিতে পারেন না, বিদেশ থেকে যে টাকা পয়সা নিয়ে আসেন তার যথাযথ ব্যবহার করতে পারেন না। সেজন্য আমরা বিদেশে গিয়ে প্রবাসীদের তথ্য সংগ্রহ করব। প্রাথমিক পর্যায়ে একটি টিম সিঙ্গাপুর যাচ্ছে। সেখানে ১ লাখ ৩০ হাজার প্রবাসী রয়েছেন, যার মধ্যে ৫৫ হাজারের কোনো এনআইডি কার্ড নেই। তারা শুধু পাসপোর্ট নিয়ে ওখানে অবস্থান করছেন। ওই ৫৫ হাজার নাগরিককে যদি আমরা এনআইডি কার্ড দিতে পারি তাহলে তারা যখন দেশে আসবেন, তখন তারা বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা পেয়ে যাবেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সালে দেশের উচ্চ আদালত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার সংবিধান স্বীকৃত বলে ঘোষণা দেয়। এরপর ২০০৮ সালে প্রথমবারের মত ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়ন ও নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে ড. এটিএম শামসুল হুদার কমিশন। পাশাপাশি ড. হুদা কমিশন প্রবাসীদেরও ভোটার করার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এর অংশ হিসেবে তখন দুই নির্বাচন কমিশনার মুহাম্মদ ছহুল হোসাইন ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এম সাখাওয়াত হোসেন বিদেশ সফর করেন। এরপর কেটে যায় আরও ১০ বছর। পরে গত বছর কে এম নূরুল হুদা কমিশন প্রবাসীদের ভোটার করার উদ্যোগটি পুনরায় সামনে আনেন। এরই অংশ হিসেবে ওই বছরই একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করেন ইসি। তারই ধারাবাহিকতায় এখন প্রবাসীদের ভোটার করার পাইলটিং হতে যাচ্ছে সিঙ্গাপুরে।

হা শা/এএস