• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০১৯, ১২:৪১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৩, ২০১৯, ০৯:১৫ পিএম

মালয়েশিয়ায় বাস দুর্ঘটনা, ৫ বাংলাদেশিসহ নিহত ১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মালয়েশিয়ায় বাস দুর্ঘটনা, ৫ বাংলাদেশিসহ নিহত ১১

 

মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে শ্রমিক বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় ৫ বাংলাদেশিসহ ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন আরো ৩৩ জন। রোববার (৭ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে সেপাংয়ে কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  

নিহতদের মধ্যে তিন নারীসহ দশজনই বিদেশি শ্রমিক। তাদের মধ্যে পাঁচজন বাংলাদেশি, তিনজন ইন্দোনেশীয় এবং দুজন নেপালি। নিহত অন্যজন মালয়েশিয়ার নাগরিক, তিনি ওই বাসের চালক ছিলেন।              

নিহত বাংলাদেশিরা হলেন- রাজিব মুনশী (২৬), সোহেল (২৪), মহিন (৩৭), আল আমিন (২৫), গোলাম মোস্তফা (২২)। আহতদের স্থানীয় তিনটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাতজন বাংলাদেশি। তাদের মধ্যে নাজমুল হক (২১), রজবুল ইসলাম (৪৩), ইমরান হোসাইন (২১) সেরডাং হাসপাতালে এবং জাহিদ হাসান (২১), সামিম আলী (৩২), মোহাম্মদ ইউনূস (২৭) ও রাকিব (২৪) পুত্রাজায়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের এমএএস কার্গো কমপ্লেক্সের ৪৩ জন কর্মী ছিলেন ওই বাসে। রাতের পালার ডিউটির জন্য বিভিন্ন হোস্টেল থেকে তাদের নিয়ে কার্গো কমপ্লেক্সে যাওয়ার সময় বাসটি দুর্ঘটনায় পড়ে। চাকা পিছলে গিয়ে বাসের সামনের অংশ রস্তার পাশের গভীর নালায় পড়ে যায়। পুলিশ ও এমএএস কার্গো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই বাসের মালয়েশীয় চালক এবং আটজন বিদেশি শ্রমিক ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহতদের হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়।

জেলা পুলিশের সহকারী কমিশনার জুলফিকার আদমশাহ বলেন, “আমরা দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করে দেখছি। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছিলেন।” ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ ফাদিল সালেহ বলেন, তারা দুর্ঘটনার খবর পান রাত সোয়া ১১টার দিকে। বাসের কয়েকটি অংশ কেটে ভেতরে আটকা পড়ে আরোহীদের বের করতে প্রায় এক ঘণ্টা সময় লেগে যায়।

সূত্র : সিএনএ

এসজেড

 

Space for Advertisement